নিজ এলাকার ৭ চেয়ারম্যান প্রার্থীকে নিয়ে সেলিম ওসমানের সভা

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ গুলোর নির্বাচনে ইতোমধ্যে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীরা তাদের নিজ নিজ এলাকার উন্নয়ন ও ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে বিভিন্ন সভা সমাবেশে এলাকার সাধারণ মানুষের কাছে প্রতিশ্রুতি প্রদান করেছেন।

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের আওতাধীন ৭টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থীদের সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন নারায়ণগঞ্জ- ৫ আসনের সাংসদ একে এম সেলিম ওসমান।

আজ ২৪ অক্টোবর (রবিবার) দুপুরে ফতুল্লায় এমপি সেলিম ওসমানের কার্যালয়ে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার আলীরটেক ইউনিয়ন থেকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাকির হোসেন, গোগনগর ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জসিম উদ্দিন। বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের লাঙ্গল প্রতীকের দেলোয়ার হোসেন প্রধান, বন্দর ইউনিয়নের লাঙ্গল প্রতীকের এহসান উদ্দিন আহম্মেদ, মুছাপুর ইউনিয়নের লাঙ্গল প্রতীকের মাকসুদ হোসেন, মদনপুর ইউনিয়ন পরিষদের নৌকা প্রতীকের গাজী এম.এ সালাম, ধামগড় ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মাসুম আহম্মেদ।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা এমপি সেলিম ওসমানের কাছে তাদের নিজ নিজ এলাকার উন্নয়নের ভবিষ্যত পরিকল্পনা তুলে ধরেন। সেই সাথে করোনা মহামারীর কারনে তাদের এলাকা যে সমস্ত উন্নয়ন কাজ গুলো অসমাপ্ত রয়ে গেছে সেই সকল কাজ গুলো এলাকার মানুষের সহযোগীতা নিয়ে দ্রুত বাস্তবায়ন করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

মতবিনিময় সভায় এমপি সেলিম ওসমান বলেন, আমি আল্লাহর কাছে দোয়া করি যদি আমার মৃত্যু হলেও জাকির হোসেন, জসিম উদ্দিন, দেলোয়ার হোসেন প্রধান, এহসান উদ্দিন, মাকসুদ হোসেন, এম.এ সালাম, মাসুম আহম্মেদ তাদের নিজ নিজ এলাকায় উন্নয়ন কাজ গুলো সম্পন্ন করতে পারেন। আর আল্লাহ যদি আমাকে হায়াত দেন তাহলে আমি তাদের সহযোগীতা নিয়েই বন্দরের ইউনিয়ন পরিষদ এলাকার উন্নয়ন কাজ গুলো সম্পন্ন করবো।

সাধারণ জনগনের উদ্দেশ্যে এমপি সেলিম ওসমান বলেন, করোনা মহামারির বিপদের সময় যারা ভয়ে ঘর থেকে বের হোন নাই। তারাই এখন জনগনের সেবার প্রতিশ্রুতি দেন। বিপদ এখনো শেষ হয়ে যায়নি। আজকে যারা এখানে এলাকার সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে ভবিষ্যত উন্নয়নের পরিকল্পনা নিয়ে এখানে এসেছে আমার এই প্রার্থী গুলোর উপর সম্পূর্ন আস্থা রয়েছে। তাই আমি দলমত নির্বিশেষে এদের আমার পক্ষ থেকে পূর্ণ সমর্থন করছি। পাশাপাশি এলাকার সাধারণ মানুষকে আগামী ১১ নভেম্বর ভোট দিয়ে তাদের প্রত্যেককে বিজয়ী করার আহবান রাখছি।

উল্লেখ্য আগামী ১১ নভেম্বর দেশব্যাপী ২য় ধাপের স্থানীয় সরকার নির্বাচনে জেলার ১৬ টি ইউনিয়নে এক যোগে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin