না.গঞ্জ কলেজের ছাত্রী অপহরনের অভিযোগে প্রেমিক গ্রেফতার

শেয়ার করুণ

জেলার ফতুল্লায় কলেজ ছাত্রী (১৭)কে অপহরণের অভিযোগে কাজল (২৬) নামক এক যুবক কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় উদ্ধার করা হয়েছে অপহৃত কলেজ ছাত্রীকে।

গত বুধবার (২৪ আগস্ট) রাতে ফতুল্লার দেওভোগ এলাকা থেকে অপহৃত কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধারসহ গ্রেফতার করা হয় কাজল কে।

গ্রেফতারকৃত কাজল ফতুল্লা মডেল থানার পশ্চিম দেওভোগ ভুইয়ার বাগের মৃত নিরঞ্জন দাসের পুত্র।

এ ঘটনায় অপহৃত কলেজ ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে অপহরণের অভিযোগ এনে কাজলসহ সদর থানার উকিল পাড়া মন্দির সংলগ্ন সুশীল দাসকে আসামী করে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

অপরদিকে গ্রেফতারকৃত কাজলের স্বজনদের দাবী, অপহরণ নয় ভালবাসার টানে তারা ঘর ছেড়েছিলো। কিন্ত আইনি বেড়াজালে কাজল অপহরণ মামলার আসামী হলো।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, বাদীর ১৭ বছর বয়সী মেয়ে নারায়নগঞ্জ কলেজের একাদশ শ্রেনীর ছাত্রী।কলেজে যাতায়াতের পথে প্রায় সময় বাদীর মেয়েকে উত্যক্ত করতো কাজল। এমনকি ৭-৮ মাস পূর্বে প্রেম নিবেদন ও করে কাজল। বিষয়টি বাদীর মেয়ে তার পরিবার কে জানায়। এতে করে বাদী সহ তার স্ত্রী কাজলের অভিভাবক হিসেবে পরিচিত সুশীল দাস সহ পরিবারের অপর সদস্যদের অবগত করে। চলতি মাসের ২২ তারিখ সকাল ৮ টার দিকে কলেজে যাওয়ার জন্য বাদীর মেয়ে তার কাশিপুর হাজীপাড়ার বাসা থেকে বের হয়। কিন্ত যথা সময়ে বাসায় ফিরে না আসায় বাদী তার মেয়ের মোবাইল ফোনে ফোন করলে তা বন্ধ পাওয়া যায়। পরে তারা খুজতে বের হয়ে জানতে পারে বাসা থেকে বের হয়ে রাস্তায় যাওয়া মাত্র বাদীর মেয়েকে ফুসলিয়ে অজ্ঞাত স্থানে অপহরন করে নিয়ে গেছে কাজল।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মিজানুর রহমান জানায়,মামলা দায়েরের পর বুধবার রাতে দেওভোগ এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপহৃত কে উদ্ধার সহ কাজল কে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুণ