না.গঞ্জে মামুনুল হকসহ হেফাজ‌তের শীর্ষ নেতারা

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

হেফাজতে ইসলাম থেকে মাওলানা আব্দুল আউয়ালের ইস্তেফা ঘোষণার পর ঢাকা মহানগর কমিটির সভাপতি মাওলানা জুনাইদ আল হাবীব ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হক নারায়ণগঞ্জের এসেছেন।

হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালে সহিংসতার পর বুধবার (৩১ মার্চ) দুপুরে নারায়ণগঞ্জে এ দু’ নেতার আগমনকে ঘিরে বেশ আলোচনা আর সমালোচনা সৃষ্টি হয়েছে।

তবে, বেশ কয়েকজন হেফাজতে ইসলামের নেতা বলছেন, হরতাল পালনের পর দিন ২৯ মার্চ ইস্তেফা ঘোষণা দেওয়া হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নায়েবে আমির ও নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার আমির মাওলানা আব্দুল আউয়ালকে দলে ফেরাতে তাদের এই আগমন।

ডিআইটি থেকে আমাদের প্রতিনিধি জানান, দুপুর থেকেই নারায়ণগঞ্জ মহানগর হেফাজতে ইসলামের আমির মাওলানা ফেরদাউসুর রহমানের নেতৃত্বে হেফাজতের নেতাকর্মীরা ডিআইটি মসজিদের সামনে অবস্থান করেছেন। বেলা ৩টার দিকে একটি সাদা গাড়িতে করে এসে হাজির হন ঢাকা মহানগর কমিটির সভাপতি মাওলানা জুনাইদ আল হাবীব ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হক। বর্তমানে তারা মসজিদের ভেতরে অবস্থান করছেন। দুপুর সাড়ে ৩টা পর্যন্ত মসজিদের ভেতরে কি হলো জানা যায়নি।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে বিক্ষোভে হতাহতের ঘটনায় গত ২৮ মার্চ হরতাল ডাকে হেফাজতে ইসলাম। সেই হরতালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন অংশে ব্যাপক হামলা, ১৭ পরিবহনে আগুন, শতাধিক পরিবহনে ভাংচুর ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশ হেফাজত সমর্থকদের ছত্রভঙ্গ করতে দেড় টিয়ারশেল এবং ৪ হাজার রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এতে ২জন গুলিবিদ্ধসহ অর্ধশত মানুষ আহত হন।

এ ঘটনার একদিন পর ২৯ মার্চ হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নায়েবে আমির ও নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির আমির পদ থেকে সড়ে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন মাওলানা আব্দুল আউয়াল।

সূত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin