না.গঞ্জে ফ্রেশ কোম্পানীর মালিকের শ্যালক পরিচয়ে প্রতারণা

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

কখনো ‘সৌদির একটি সংস্থার লোক’, কখনো ‘রিয়েল এষ্টেট কোম্পানীর মালিক’, আবার কখনো ‘ফ্রেশ কোম্পানীর মালিকের শ্যালক’; এমন নানা পরিচয়ে ব্যবসায়ীদের সাথে প্রতারণা করে আসছিলেন একটি সংঘবদ্ধ চক্র। র‌্যাবের ধারণা, ‘গত ১৫ বছরে চক্রটি শতাধিক ব্যবসায়ীকে নিঃস্ব ও সর্বস্বান্ত করেছেন’।

রোববার (৯ মে) বিকালে র‌্যাব-১১ এর কার্যালয় থেকে প্রেরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তারের তথ্য জানানো হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন-মো. এসহাক আলী (৭০), মো. মামুন (৪৯), খন্দকার মো. রাজু আহমেদ ওরুফে মাসুদ (৫৬) ও মো. ফারুক কবির (৩৫)।

বিজ্ঞপ্তিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জসিম উদ্দীন চৌধুরী জানান, নারায়ণগঞ্জসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় ব্যবসায়ী শ্রেণীর লোকজনদের টার্গেট করে বিভিন্ন লাভজনক ব্যবসার প্রলোভন দেখিয়ে কখনও ঠিকাদারী কাজ পাইয়ে দেওয়া, কখনো ডিলারশীপ পাইয়ে দেওয়া, কখনোবা এজেন্ট নিয়োগের কথা বলে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় তাদের ভাড়াকৃত সুসজ্জিত অফিসে ডেকে নিয়ে আসে এবং জামানত/বিনিয়োগ বাবদ প্রতারণামূলকভাবে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে আত্মসাৎ করে আসছে। প্রতিনিয়ত নিত্য নতুন কৌশলে এই সংঘবদ্ধ প্রতারকচক্রের সদস্যরা তাদের পাতানো প্রতারণার ফাঁদে ফেলে সহজ সরল ব্যবসায়ীদের নিঃস্ব ও সর্বস্বান্ত করে আসছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ৮ মে অভিযানে ফতুল্লার বিভিন্ন স্থান থেকে সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের ৪ সক্রিয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin