না.গঞ্জে দুই সপ্তাহ ধরে ঝড়ের গতিতে বেড়ে চলেছে করোনার সংক্রমন!

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত মানুষের সংখ্যা ১০ হাজারের বেশি। কয়েকমাস যাবত সংখ্যাটা আস্তে আস্তে বড় হ‌লেও, দুই সপ্তাহ ধরে বেড়ে চলেছে ঝড়ের গতিতে।

৩১ মার্চ (বুধবার) নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন অফিসের তথ্য মতে আজ নতুন করে ৬১ জনসহ এই পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জে করোনা ভাইরাসে মোট আক্রান্ত হয়েছে ১০০২৭ জন। তাঁদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ১৮ জন। সংক্রমিতদের মধ্যে দুই চিকিৎসকসহ মারা গেছেন ১৭০ জন।

স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হলেও মানুষ তা মানছেন না। মাস্ক ছাড়াই ঘোরাফেরা করছেন নগরের বাসিন্দারা। বিভিন্ন এলাকায় সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চলায় সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কা রয়েছে।

নারায়ণগঞ্জের সিটি এলাকায় করোনায় সংক্রমিত হয়ে সবচেয়ে বেশি ৮৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখানে মোট ৩ হাজার ৪৬৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সদর উপজেলায় করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ১ হাজার ৯৫৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৮ জনের। বন্দর উপজেলায় করোনায় সংক্রমিত হয়ে ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখানে মোট ৪৭৩ জনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়। আড়াইহাজারে করোনায় সংক্রমিত চারজনের মৃত্যু হয়েছে। মোট সংক্রমিত হয়েছেন ৭৪১ জন।

রূপগঞ্জ উপজেলায় করোনায় সংক্রমিত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ১২ জনের। এখানে মোট ১ হাজার ৫৭৭টি নমুনার প্রতিবেদন পজিটিভ আসে। সোনারগাঁ উপজেলায় করোনায় মারা গেছেন ৩০ জন। মোট ৮৩২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ও জেলার করোনার ফোকাল পার্সন ডা. জাহিদুল ইসলাম বলেন, আপনারা বাজারে যান, মার্কেটে যান, যেখানেই যান না কেন, প্রতিটি স্ট্যাপে মাস্ক পড়তেই হবে। প্রয়োজনে সামাজিক যে অনুষ্ঠান আছে, সেগুলো কমিয়ে দিতে হবে। যদিও সরকার ইতোমধ্যে ঘোষণা দিয়েছে, ১’শ জনের বেশি জনসমাগম অনুমতি দেওয়া যাবে না।

সূত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin