না.গঞ্জে গ্রীল চিকেন ও নান খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি ১১ জন

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

জেলার ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের কাঁচপুরে একটি স্থানীয় হোটেল থেকে চিকেন গ্রিল ও নান রুটি খেয়ে দুই পরিবারের ৮ জনসহ মোট ১১জন হাসপাতালে ভর্তি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) রাত ৯টায় কাঁচপুরের সুমন হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্ট নামের এই হোটেলের চিকেন গ্রিল ও নান রুটি খেয়ে অসুস্থ হয়ে পরেন তারা। এ ঘটনায় হোটেলের মালিক হোটেলে বন্ধ করে চলে যান বলে জানা যায়।

ভুক্তভোগী হুমায়ুন জানান,মঙ্গলবার সন্ধায় স্ত্রী, ছেলে মেয়েদের ও ভাতিজার বায়নায় কাঁচপুরে গ্রিল ও নান রুটি খেতে নিয়ে আসি। খাওয়ার পরেই বাসায় গিয়ে হঠাৎ করে স্ত্রী মুক্তা(৩৬), মেয়ে ফাতেমা (৮)ও মুন(৭), ছেলে সান (৩), ভাতিজা নয়ন সহ ভাতিজি শাহারা, পলি অসুস্থ হয়ে পরে।তাদের ভূলতা জেনারেল হাসপাতালে তাদের ভর্তি করা হয়েছে।

এছাড়া আরও এক পরিবার চিকেন গ্রিল ও নান রুটি খেতে আসা হালিমা (৩২) জানান,দুই ছেলে আশিক (১৬), জুবায়ের হোসেন (১২),ও আফরুজা ( ৭) মেয়ে নিয়ে গ্রিল খেতে আসি খাওয়ার পরেই বাসায় যেতে না যেতে অসুস্থ হয়ে পরি।পরে স্বামী নবী হোসেন আমাদের কাঁচপুর হাসপাতালে ভর্তি করান,এখনো কিছু খেতে পারছি না, খেলেই বমি হয়।ছেলে মেয়েদের ও একই অবস্থা।

এ ব্যাপারে কাঁচপুর এ্যাপোলো হাসপাতালের ডাক্তার আসাদুজ্জামান বলেন,পেটব্যথা, বমি ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত ৪ জন রোগী হাসপাতালে আসে। তাদের সবাইকে ভর্তি নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। নিম্নমানের পচা ও বাসি খাবার খাওয়ানোর কারণে এটা হতে পারে বলে তিনি জানান।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) সজীব জানায়,এই বিষয়ে হোটেল মালিক সুমন আমাকে কল দিয়েছিল। তিনি আমাকে বলেন তার হোটেলের নামে কে বা কারা অপপ্রচার করে সুনাম নষ্ট করার পায়তারা করছে। অসুস্থর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন,যদি এই হোটেলের খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে থাকে তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin