‘নাসিম ওসমান সেতু’ চালু হচ্ছে জুনে

শেয়ার করুণ

চলতি বছরের জুন মাসেই চালু হবে শীতলক্ষ্যা নদীর একেএম নাসিম ওসমান সেতু। এই সেতু ঘিরে পদ্মা সেতুর সঙ্গে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সহজ সড়ক নেটওয়ার্ক দেশের অর্থনীতিতে বড় অবদান রাখতে যাচ্ছে। এতে কমবে নারায়ণগঞ্জ শহরের উপরেও যানবাহনের চাপ।

৩য় শীতলক্ষ্যা সেতু প্রকল্প ব্রিজইঞ্জিনিয়ার মােঃ ওসমান গনি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তাই এখন অলঙ্কারিক খুঁটিনাটি কাজের পাশাপাশি এ্যাপ্রােচ সড়ক নির্মাণ কাজ চলছে।১ হাজার ২৩৪ দশমিক ৫০ মিটারদীর্ঘ ৬ লেন বিশিষ্ট এই সেতুতে স্থানীয় ধীরগতির যান চলাচলের জন্য ভিন্ন লেন রাখা হয়েছে।

অবকাঠামাে নির্মাণ শেষে সেতু খুলে দিতে এখন চলছে এ্যাপ্রােচ সড়ক ও খুঁটিনাটি কাজ। প্রকল্পসংশ্লিষ্টরা বলছেন, সেতুটি চালু হলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাড়কের সঙ্গে পদ্মা সেতুর দূরত্ব কমবে ৯ কিলােমিটার।

নদীতে চারটিসহ ৩৮টি খুঁটির ওপর শীতলক্ষ্যা-৩ সেতু। নারায়ণঞ্জের শীতলক্ষ্য নদীর ওপর নির্মিত এই সেতুটি সরাসরি কংক্রিটের ঢালাইয়ে তৈরি
৪শ’ মিটার মূল সেতু।

এর দুই প্রান্তে ৮শ’ ৩৪ দশমিক ৫০ মিটার সংযােগ সেতুর অবকাঠামাে নির্মাণ শেষ। সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের সহকারী প্রকৌশলী মােঃ সিদ্দিকুর রহমান জানান, সেতুর অবকাঠামাে নির্মাণ শেষে এখন ফিনিশিং কাজ চালিয়ে যাচ্ছে সেতুটির পরামর্শক মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ জানান, মান সঠিক রেখেইকাজগুলাে সম্পন্ন হচ্ছে। মানের কাছে কোন আপােস নেই।

৩য় শীতলক্ষ্যা সেতু বা একেএম নাসিম ওসমান সেতু প্রকল্পের ইঞ্জিনিয়ার মােঃ ওসমান গনি জানান, পদ্মা সেতু ঘিরে নির্মাণ করা এই সেতু দেশের উত্তর-পূর্ব ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সড়ক যােগাযােগে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের বাইপাস। সেতুর দুই পাশের রেলিং ঘেঁষে রয়েছে ফুটপাথ। হেঁটেও সেতু পাড়ি দেয়া যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুণ