নাসিকের ৬ হাটের ইজারা সম্পন্ন

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) এলাকায় এবছর ৬টি অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) বিকেলে নগরভবনে দরপত্র উন্মুক্ত করা হয়। দু’টি হাটের সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন দরদাতাদের নাম ঘোষণা করেন নাসিকের বাজার কর্মকর্তা জহিরুল আলম। এর আগে ১ জুলাই ৪টি হাটের দরপত্র ইজারা সম্পন্ন হয়েছিল।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে এবছরেও নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনে হাটের সংখ্যা এবার কমে এসেছে। এবছর ৬টি ওয়ার্ডে হাটের দরপত্র আহবান করা হয়েছিল। যার মধ্যে ১ জুলাই ৪টি হাটের দরপত্র সম্পন্ন হয়েছিল। যার মধ্যে নাসিক ৫ নম্বর ওয়ার্ড ওমরপুরের সিদ্ধিরগঞ্জ বাজার রোডের পাশে জালাল উদ্দিন আহম্মেদের খালি জায়গা হাজী কবির হোসেন পেয়েছেন ৪ লাখ ১০ হাজার টাকায়। গত বছর এই হাটের ইজারার সর্বোচ্চ দর ছিল ৩ লাখ ৭০ হাজার টাকা। ৯ নম্বর ওয়ার্ড ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পশ্চিম পার্শ্বের জালকুড়ি টিসি রোড সংলগ্ন খালি জায়গার হাটের সর্বোচ্চ দর ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা দিয়েছেন মিজানুর রহমান। গত বছর মিজানুর রহমান এই হাটের সর্বোচ্চ দর দিয়েছিলেন ৩ লাখ ১০ হাজার টাকা। ২৫নং ওয়ার্ড চৌরাপাড়া অস্থায়ী পশুর হাটটির সর্বোচ্চ দর ২৭ লাখের অধিক দিয়েছেন অ্যাডভোকেট আল আমিন। ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের ফুলহর আনোয়ার সাহেবের বালুর মাঠ হাটটির সর্বোচ্চ দর ১ লাখ ৭২ হাজার টাকা দিয়ে ইজারা পেয়েছেন যুবলীগ নেতা ওয়াহিদুজ্জামান অহিদ। গত বছর এই হাটটি অহিদ ইজারা নিয়েছিলেন ১ লাখ ৬১ হাজার ৫০০ টাকায়।

৮ জুলাই দ্বিতীয় দফায় ৮ নম্বর ওয়ার্ডের গোদনাইল ইব্রাহিম টেক্সটাইল মিলস মাঠের অস্থায়ী হাটের সর্বোচ্চ দর দিয়েছেন ২১ লাখের অধিক দিয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ্ আলম। গত বছর সর্বোচ্চ দর ছিল ১৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা। ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের নবীগঞ্জ বাজার সংলগ্ন অস্থায়ী পশুর হাটের সর্বোচ্চ দর ১০ লাখের অধিক দিয়েছেন শফিউল্লাহ। গত বছর শফিউল্লাহ হাটটি নিয়েছিলেন ৯ লাখ ৮৫ হাজার টাকায়।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের বাজার কর্মকর্তা জহিরুল আলম জানান, সিটি কর্পোরেশনের সিদ্ধিরগঞ্জ অঞ্চলে ৩টি, ও কদমরসূল অঞ্চলে ৩টি হাটের দরপত্র আহ্বান করা হয়েছিল। দরপত্র উন্মুক্ত করার মধ্য দিয়ে সর্বোচ্চ দরদাতাদের নির্বাচন করা হয়েছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমনের বিষয়টি মাথায় রেখে স্বাস্থ্য বিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে হাট পরিচালনা করতে হবে। পবিত্র ঈদুল আজহার তিনদিন পূর্বে থেকে হাট বসাতে পারবেন ইজারাদাররা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin