নারায়ণগঞ্জ পুলিশের দূরদর্শীতায় ধরা পড়লো পলাতক খুনি

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রান কেন্দ্র নিতাইগঞ্জের ডাইলপট্টি এলাকায় নৈশপ্রহরী মো. ভাসান মালতি হত্যা মামলার আসামি আক্কুকে(২০) গ্রেফতার করেছে সদর মডেল পুলিশ।এসময় হত্যার কাজে ব্যবহৃত একটি ধারালো ছোড়া উদ্ধার করা হয়েছে।

১৭ ফেব্রুয়ারী (বৃহস্পতিবার) রাত পৌনে ১০টায় শহরের ৩নং মাছঘাট এলাকা থেকে এ পালাতক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। জানা গেছে গ্রেফতারকৃত আক্কু নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার ইস্পাহানী এলাকার কাদিরের ছেলে।

এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুল হাওলাদার জানান, সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজের সূত্র ধরে নারায়ণগঞ্জ শহরের বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ খবরসহ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১০টায় একটি সিসি টিভির ফুটেজের সূত্র ধরে হত্যার আসামি আক্কুকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ওই অভিযান পরিচালনা কালে পরিদর্শক ছাড়াও শীতলক্ষ্যা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সাঈদুর রহমান সাঈদ ও চাষাঢ়া ফাঁড়ির ইনচার্জ মঞ্জুর মোর্শেদ আলাম ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই এসএম কামরুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে মঙ্গলবার এক চোরের ছুরিকাঘাতে শহরের নিতাইগঞ্জ এলাকায় ভাসান মালতি (৫০) নামে এক নৈশ প্রহরী নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটে। নিহত ভাসান মালতি কুষ্টিয়া দৌলত খালী চৌধুরীপাড়ার জালাল মালতির ছেলে। সে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে পরিবার নিয়ে ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছেন।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুল হক হওলাদার জানান, ওই ‘নৈশপ্রহরী রাতে শহরের নিতাইগঞ্জে দায়িত্ব পালন করছিলেন। ওইসময় এক চোর গোলাপ শাহ নামে একটি স্টোরের চালার টিন খুলে দোকানের ভিতরে প্রবেশ করে। সেখান থেকে নগদ টাকা ও চোরাই মালামাল নিয়ে বের হয়ে আসার সময় দেখতে পায় নৈশপ্রহরী ভাসান মালতি। তখন বাধা দিতে গেলেই চোর নৈশপ্রহরীকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা নৈশপ্রহরীকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতাল নিয়ে যাওয়া হলে সেখানকার কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে।’

এ ঘটনায় প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ঘটনাস্থলে যাওয়া সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক কামরুজ্জামান জানায়, ‘নৈশপ্রহারী সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। যার ধারাবাহিকতায় চোরকে বাধা দিতে গিয়েই ছুরিকাঘাতের শিকার হন।বাধা সৃষ্টির সময় ছিরিকাঘাতে তিনি মাটিতে পরে গিয়েও তার হাতে থাকা বাঁশি জোরে জোরে ফুঁ-দিতে থাকেন। তখন স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে চোর দ্রুত পালিয়ে যায়।’

সূত্রঃ বাংলাদেশ টুডে ডট নেট

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin