নারায়ণগঞ্জের সবচেয়ে অসাম্প্রদায়িক হলো ওসমান পরিবার: খোকন সাহা

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin


নারায়ণগঞ্জে যত দৃশ্যমান উন্নয়ন হয়েছে সব ওসমান পরিবারের জন্য হয়েছে। বিশাল দেশ ভারতে হাইকোর্টের নির্দেশে পূজার সংখ্যা কমিয়ে আনা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জের সবচেয়ে অসাম্প্রদায়িক পরিবার হলো ওসমান পরিবার। প্রায় ৫০ শতাংশ দুর্গা পূজামন্ডপ হচ্ছে আর বাকিগুলো বন্ধ। কিন্তু আমাদের প্রধানমন্ত্রী সংখ্যালঘুদের অভিভাবক বিধায় সারাদেশে কোন পূজামন্ডপ বন্ধ করার নির্দেশ প্রদান করেন নাই। বরং সারাদেশে ৩০টি মন্ডপ বৃদ্ধি পেয়েছে। ইতোমধ্যে নারায়ণগঞ্জেও নতুন তিনটি মন্ডপ বৃদ্ধি পেয়েছে যা হলো শেখ হাসিনার অবদান।

২৬ অক্টোবর (সোমবার) দুপুরে নগরীর ৩ নম্বর মাছ ঘাট এলাকায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের আয়োজিত প্রতিমা বিসর্জন অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা এসব কথা বলেন।

বিসর্জনে উপস্থিত সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা সবাই অনেক দূরদূরান্ত থেকে এসেছেন। আপনারা করোনার হাত থেকে বাঁচার জন্য মাস্ক ব্যবহার করবেন। অবশ্যই আনন্দ ফুর্তি করবেন। আমরা জেলা প্রশাসকের সাথে কথা বলেছি, আমরা চারটার মধ্যে সমস্ত বিসর্জনের কাজ সমাপ্ত করার কথা বলেছেন। আপনারা সবাই সহযোগিতা করবেন যাতে করে আমাদের ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্ক অটুট থাকে। মানুষ সুন্দর সুষ্ঠুভাবে পূজা পরিচালনা করতে পারে।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. মাহমুদা মালা ও জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দীপক কুমার সাহার প্রশংসা করে তিনি বলেন, মাহমুদা মালা ও দীপক সাহা বিভিন্ন মন্দিরে টাকা দিয়েছেন। এটা অসাম্প্রদায়িক প্রথার প্রতীক। হিন্দু-মুসলিম কোন পার্থক্য নেই এখানে। যা আমরা করোনাকালীন সময়ে দেখতে পেয়েছি।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. মাহমুদা মালা, নাসিকের সংরক্ষিত আসনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর শারমিন হাবিব বিন্নি, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দীপক কুমার সাহা, সাধারণ সম্পাদক শিখন সরকার শিপন, মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অরুণ কুমার দাস, সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার সাহা, ফতুল্লা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি রঞ্জিত মন্ডল প্রমুখ।

সূত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin