নবীন-প্রবীনের সমন্বয়ে গঠিত হবে ফতুল্লার বিভিন্ন ইউনিয়ন কমিটিঃ রোজেল

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

ফতুল্লা থানা বিএনপির অন্তর্গত ৫ টি ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটি নবীন-প্রবীন আর ত্যাগীদের সমন্বয়ে আগামী ৭ দিনের মধ্যে ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন ফতুল্লা থানা বিএনপির আহবায়ক জাহিদ হাসান রোজেল।

আজ শুক্রবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে ফতুল্লার ইউনাটেড ক্লাবে থানা বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটির পরিচিতি সভায় থানা বিএনপির আহবায়ক জাহিদ হাসান রোজেল বলেন, আগামী ৭ দিনের মধ্যে ফতুল্লার অন্তর্গত ৫ টি ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করা হবে। প্রতিটি কমিটি হবে প্রবীন নবীনের সমন্বয়ে। ফতুল্লায় কমপক্ষে ৭০ হাজার নেতাকর্মী আছে। সবাইকে তো আর ভালো যায়গায় রাখা সম্ভব নয় তবে দলের প্রয়োজনে সবাইকে সমন্বয় করে কমিটি করা হবে। এ ক্ষেত্রে দলের প্রতি আনুগত্য ও বিগত দিনের কার্যক্রম দেখা হবে, কে কার লোক তা দেখার সুযোগ নেই। পরবর্তীতে দ্রুততম সময়ে সম্মেলনের মাধ্যমে সব কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সদস্য সচিব মোঃ শহিদুল ইসলাম টিটু, মোঃ একরামুল কবির মামুন, মোঃ আকবর হোসেন, মোঃ ওমর আলী, মোঃ রুহুল আমিন শিকদার, মোঃ আব্বাস আলী বাবুল, এস.এম মাহমুদুল হক আলমগীর, আল-আমিন সিদ্দিকী, মোঃ আলাউদ্দিন বারী, সদস্য আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, রিয়াদ মোঃ চৌধুরী, রহিমা শরীফ মায়া, মোঃ নাদিম হাসান মিঠু, মোঃ আবু তাহের মোল্লা, মোঃ আমজাদ শিকদার, মোঃ বোরহান ব্যাপারী, সৈয়দ মশিউর রহমান শাহীন, মোঃ গিয়াস উদ্দিন লাভলু, মোঃ রাসেদুল হক মিলকী, জাহিদ হাসান রুবেল, আবু বখতিয়ার সোহাগ, কায়েস আহমেদ পল্লব, মোঃ হাবিবুর রহমান রিপন, এনামুল হক মামুন, আবুল হোসেন, শাহজাহান আলী, মাহফুজুর রহমান লিমন, মোঃ জুয়েল আরমান।

পরিচিতি সভায় কমিটির যুগ্ম আহবায়ক নজরুল ইসলাম পান্না মোল্লা ব্যক্তিগত কারণে ও সদস্য মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন একটি মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে থাকায় অনুপস্থিত ছিলেন। এই দুজন বাদে কমিটির বাকি সকলে উপস্থিত ছিলেন সভায়।

উল্লেখ্য, গত ৭ ফেব্রুয়ারি আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের হাতে কমিটির কাগজ তুলে দেয়া হয়। এ বছরের ২০ জানুয়ারি কমিটি অনুমোদন দেন জেলা বিএনপির তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক নাসিরউদ্দিন ও সদস্য সচিব মামুন মাহমুদ। অনুমোদনের দিন থেকে পরবর্তী ৪৫ দিনের মধ্যে ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন সম্মেলন শেষে থানা সম্মেলন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল তখন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin