নদীতে ভেসে উঠলো নিখোঁজ বাবা-মেয়ের মরদেহ

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

জামালপুরের সরিষাবাড়িতে নিখোঁজ হওয়ার দু’দিন পর ঝিনাই নদীতে ভাসমান অবস্থায় বাবা ও মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিখোঁজের দুই দিন পর বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) বেলা ১১টায় উপজেলার ভাটারা ইউনিয়নের কৃঞ্চপুর গ্রামের ঝিনাই নদীর সেতু কাছ থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে চারজনকে আটকও করেছে পুলিশ।

নিহতরা হলেন- একই উপজেলার কামরাবাদ ইউনিয়নের বীর বইশি গ্রামের আব্দুল আজিজ (৩৫) ও মেয়ে জান্নাত (৫)।

সন্দেহভাজন আটকরা হলেন- নিহতের স্বজন পীর মাহমুদ, মর্জিনা বেগম, কাকুলী বেগম, সোমা বেগম।

সরিষাবাড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর রকিবুল হক বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহত আজিজের ভাতিজা ফয়সাল আহমেদ জানান, এক মাস আগে সৌদি প্রবাসী আব্দুল আজিজ ছুটি নিয়ে বাড়িতে আসেন। পারিবারিক বিরোধের জের ধরে বড় ভাই আজাহারের সঙ্গে বিরোধ ও মামলা চলছিল তার। এরই মধ্যে গত ২৯ মার্চ রাতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আজাহার ও তার লোকজন আজিজের বাড়িতে হামলা চালায়। সে সময় সবাই পালিয়ে গেলেও আব্দুল আজিজ ও তার মেয়ে জান্নাত নদী পার হতে পারেনি। এরপর থেকেই নিখোঁজ ছিলেন তারা। বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় ঝিনাই নদী থেকে বাবা ও মেয়ের ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহতের স্ত্রী রোকেয়া বলেন, আমার স্বামী ও মেয়ে জান্নাত নিখোঁজের পর থানায় মামলার জন্য গেলে পুলিশ আমাদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করে। অনেক খোঁজাখুঁজির পর বৃহস্পতিবার সকালে আমার স্বামী আর সন্তানের মরদেহ পেয়েছি।

এ ব্যাপারে ওসি মীর রকিবুল হক জানান, প্রাথমিক সুরতহালে নিহতদের শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতদের মরদেহ জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সূত্রঃ বাংলানিউজ২৪

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin