ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার সেই পুলিশ সদস্য কারাগারে

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

দুই সন্তানের জননীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার পুলিশ সদস্যকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল মোহসীনের আদালত এ আদেশ দেন।

গ্রেপ্তারকৃত পুলিশ সদস্য হলেন- ভোলার চরফ্যাশনের উত্তর চরমঙ্গল গ্রামের সিরাজ মিয়ার ছেলে মো. আব্দুল কুদ্দুস নয়ন। তিনি রাজরবাগ পুলিশ লাইনসে কন্সটেবল (ড্রাইভার) হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন।

এর আগে, ৭ অক্টোবর রাতে ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ লাইনসের কর্মস্থল থেকে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়। একই দিন ভুক্তভোগী ওই নারী বাদী হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যঅতন দমন আইনের একটি মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করে কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান বলেন, ধর্ষণের মামলায় দুপুরে আসামীকে আদালতে তোলা হয়। আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে রিমান্ড কিংবা আসামি পক্ষের কেউ জামিন আবেদন করেননি।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী ওই নারীর সঙ্গে দুই বছর আগে ফেসবুকের মাধ্যমে পরিচয় হয় পুলিশ সদস্য মো. আব্দুল কুদ্দুস নয়নের। ফেসবুকের পরিচয়ের সূত্র ধরে নয়নের সঙ্গে প্রায়ই কথা হতো ওই নারীর। কথা বলার একপর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমের এই সম্পর্কের কারণে নয়ন প্রায় সময়ই ওই নারীর বাসায় যাতায়াত করতো। গত ৬ অক্টোবর বিকেলে নয়ন আবারও ওই নারীর বাসায় আসে। এ সময় নয়ন বিয়ে সংক্রান্ত বিষয়ে আলাপ আছে বলে দরজা বন্ধ করে দেয়। ওই নারী দরজা বন্ধ করতে বারণ করলেও তাকে ধর্ষণ করেন নয়ন।

এর আগেও নয়ন বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই নারীকে ধর্ষণ করেন বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়। ওই নারীর আগেও একটি বিয়ে হয়েছিল। সেই সংসারের একটি ছেলে ও একটি মেয়ে রয়েছে।

সূত্রঃলাইভ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin