নারায়ণগঞ্জের দেওভোগে ধর্ষণ মামলায় গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে বর গ্রেফতার

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জের দেওভোগে প্রেমিকার ধর্ষণ মামলায় ইসতিয়াক আহম্মেদ নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) রাতে সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার পশ্চিম দেওভোগ নাগবাড়ি এলাকায় নিজের বাড়িতে তার গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান থেকে ইসতিয়াককে গ্রেফতার করা হয়।

পরে শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) দুপুরে ফতুল্লা থানা পুলিশ ওই ধর্ষণ মামলায় আসামি ইসতিয়াককে নারায়ণগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করলে পরে আদালতের নির্দেশে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

ইসতিয়াক আহমেদ নাগবাড়ি এলাকার মিজানুর রহমানের ছেলে। মামলার বাদী ও ইসতিয়াক আহমেদের প্রেমিকা পার্শ্ববর্তী বাবুরাইল তাঁতীপাড়া এলাকার বাসিন্দা। মামলায় ওই তরুণী অভিযোগ করেন, গত চার বছর আগে ইসতিয়াকের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর বিভিন্ন সময় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ইসতিয়াক তার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করতে বাধ্য করে। বিয়ের আশ্বাস ও প্রলোভনের এক পর্যায়ে নাগবাড়ি মন্দির সংলগ্ন জিকু মিয়ার বাড়ির তিন তলায় ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে ধর্ষণ করতে থাকে।

সর্বশেষ ২০১৯ সালের ২৫ ডিসেম্বরও ওই ফ্ল্যাটে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে ইসতিয়াক। এরপর থেকে বিয়ের ব্যাপারে কথা বললে ইসতিয়াক নানাভাবে টালবাহানা শুরু করে এবং বিয়ে না করার পাঁয়তারা করতে থাকে।

গত ১৪ অক্টোবর সন্ধ্যায়ও তাকে বিয়ে করার কথা বলে বিয়ে করেনি। উল্টো জানিয়ে দেয় সে বাবা মায়ের পছন্দে অন্যত্র বিয়ে করবে এবং তাকে যেন বিরক্ত না করে সেজন্য গালাগাল করেন ইসতিয়াক।

পরে ওই তরুণী জানতে পারেন ইসতিয়াক গোপনে বিয়ে করছে। বিষয়টি তিনি তার অভিভাবকদের জানিয়ে থানায় অভিযোগ করেন। ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন জানান, তরুণীর অভিযোগের ব্যাপারে প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা পেয়ে ইসতিয়াককে তার হলুদ সন্ধ্যার অনুষ্ঠান থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ইসতিয়াক এখন কারাগারে রয়েছে। তার ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

সূত্রঃপ্রজন্ম২৪

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin