তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু নির্মাণে ধীরগতিঃ অসন্তুষ্ট ওবায়দুল কাদের

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীর (মদনগঞ্জ-সৈয়দপুর) উপর তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু নির্মাণে ধীরগতির কারণে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সেতু নির্মাণের প্রকল্প অফিস নারায়ণগঞ্জে না হয়ে ঢাকায় থাকার কারণেও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি। প্রকল্প বাস্তবায়নের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের কর্মস্থল ছেড়ে ঢাকায় অবস্থানেরও সমালোচনা করেন সেতুমন্ত্রী

রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) ভারতীয় ঋণ কর্মসূচির আওতায় বাস্তবায়নাধীন প্রকল্প এবং তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতুর নির্মাণকাজের অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমার কাছে অভিযোগ রয়েছে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মরতদের অধিকাংশ ঢাকায় অফিস করেন। সেতু নির্মিত হচ্ছে নারায়ণগঞ্জে, আর প্রকল্পের অফিস কেন ঢাকায়? এটিও প্রকল্প বাস্তবায়ন বিলম্বিত হওয়ার একটি কারণ। প্রকল্প এলাকায় অফিস থাকবে, ঢাকায় নয়। আমি লক্ষ্য করছি, পুরো ঢাকা শহরজুড়ে বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। এসবের প্রয়োজনীয়তা কতটুকু?’ ভবিষ্যতে প্রকল্প গ্রহণের সময় অফিস ভবনসহ অন্যান্য স্থায়ী স্থাপনা নির্মাণের প্রয়োজনীয়তা খতিয়ে দেখতে পরিকল্পনা উইংকে নির্দেশনা দেন তিনি।

বাংলাদেশ সরকার এবং সৌদি সরকারের যৌথ অর্থায়নে প্রায় ৬০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় ৩য় শীতলক্ষ্যা সেতু নির্মাণ করা হচ্ছে জানান সেতুমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘প্রায় সোয়া এক কিলোমিটার দীর্ঘ সেতুর সাথে ২ কিলোমিটারের বেশি দীর্ঘ সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হবে। ইতোমধ্যে সৌদি ফান্ডের অর্থ ছাড়ে বিলম্বসহ করোনা মহামারী এবং অন্যান্য কারণে প্রকল্পটিতে ধীরগতি রয়েছে। আমি আশা করব, শম্বুকগতিতে পেয়ে বসা এ সেতুর নির্মাণ কাজ এখন গতি পাবে।

বাংলাদেশ সরকার এবং সৌদি সরকারের যৌথ অর্থায়নে প্রায় ৬০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় ৩য় শীতলক্ষ্যা সেতু নির্মাণ করা হচ্ছে জানান সেতুমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘প্রায় সোয়া এক কিলোমিটার দীর্ঘ সেতুর সাথে ২ কিলোমিটারের বেশি দীর্ঘ সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হবে। ইতোমধ্যে সৌদি ফান্ডের অর্থ ছাড়ে বিলম্বসহ করোনা মহামারী এবং অন্যান্য কারণে প্রকল্পটিতে ধীরগতি রয়েছে। আমি আশা করব, শম্বুকগতিতে পেয়ে বসা এ সেতুর নির্মাণ কাজ এখন গতি পাবে।

সূত্রঃ প্রেস নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin