জানুয়ারিতে নাসিক নির্বাচন

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

বর্তমান নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সময়ে জেলা পরিষদ নির্বাচন হচ্ছে না। ইউপি নির্বাচন শেষ করতে না পারায় জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসছে কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন এই কমিশন। ডিসেম্বরের মধ্যে সব ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠানের ঘোষণা দিলেও এর একটি অংশ জানুয়ারিতে গড়াতে পারে।

এদিকে ডিসেম্বরে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচন অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা নিলেও সেটা পিছিয়ে জানুয়ারির শেষ দিকে যেতে পারে। এ হিসেবে নাসিক-ই হতে পারে বর্তমান কমিশনের শেষ নির্বাচন। ১৪ তারিখে শেষ হতে যাওয়া বর্তমান কমিশনের নাসিক নির্বাচনই হবে সর্বশেষ নির্বাচন। জানুয়ারিতে ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করে নভেম্বর মাসে নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনের তফসিল হতে পারে বলে ইসি সূত্রে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ২২ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন অনষ্ঠিত হয়। নির্বাচিত করপোরেশনের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয় ২০১৭ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি। অর্থাৎ এ সিটির পাঁচ বছর পূর্ণ হবে ২০২২ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি। এ ক্ষেত্রে জানুয়ারির শেষ কিংবা ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে এই নির্বাচন হলে আইনি সমস্যা হবে না। সিটি করপোরেশন আইন অনুযায়ী, নির্বাচিত করপোরেশনের মেয়াদকাল হচ্ছে প্রথম সভা থেকে পরবর্তী পাঁচ বছর। ভোট করতে হয় মেয়াদ শেষ হওয়ার ১৮০ দিনের মধ্যে। এই হিসেবে গত ১১ আগস্ট এনসিসির নির্বাচনের কাউন্টডাউট শুরু হয়েছে। আগামী বছরের ৭ ফেব্রুয়ারির মধ্যে এর ভোট শেষ করতে হবে।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের অন্যান্য পরিষদের নির্বাচিত প্রতিনিধিরা যেহেতু জেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটার, তাই ইউপি নির্বাচন শেষ না করে ওই ভোট করা যাবে না। তবে বর্তমান কমিশনের অধীনে জেলা পরিষদ নির্বাচন দেখা যাবে না বিষয়টি তাই নয়—যেসব জেলার সব ইউনিয়নের ভোট আমরা শেষ করতে পারবো সেখানকার জেলা পরিষদ নির্বাচন হয়তো করা হবে।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের অন্যান্য পরিষদের নির্বাচিত প্রতিনিধিরা যেহেতু জেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটার, তাই ইউপি নির্বাচন শেষ না করে ওই ভোট করা যাবে না। তবে বর্তমান কমিশনের অধীনে জেলা পরিষদ নির্বাচন দেখা যাবে না বিষয়টি তাই নয়—যেসব জেলার সব ইউনিয়নের ভোট আমরা শেষ করতে পারবো সেখানকার জেলা পরিষদ নির্বাচন হয়তো করা হবে।

তিনি আরও বলেন, শিগগিরই আরেক ধাপের ইউপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হবে। ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে হয়তো ভোটটি হবে। এইচএসসি পরীক্ষা ভোটে প্রভাব ফেলবে না। নেহায়েত দু’একটি কেন্দ্রে যদি পরীক্ষা হয়েও থাকে সেটা অ্যাডজাস্ট করা যাবে।

এক প্রশ্নের জবাবে এই কর্মকর্তা বলেন, নির্বাচন কমিশন কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের চিন্তাও করছে তবে, কুমিল্লার নির্বাচন নাও হতে পারে। সেই হিসেবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনেই হয়তো বর্তমান কমিশনের শেষ নির্বাচন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin