গণপরিবহন বন্ধে ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

জেলায় চলমান লকডাউনের সপ্তম দিন চলছে আজ। এর মাঝে শুরু হয়েছে তিন দিনের দেশব্যাপী সীমিত লকডাউন। গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও খোলা রয়েছে সরকারি-বেসরকারি অফিস। ফলে সকাল থেকেই অফিসগামী সাধারণ মানুষেরা পড়েছেন চরম ভোগান্তিতে। অল্পসংখ্যক সিএনজিচালিত অটোরিকশা, রিকশা–ভ্যানে যাত্রী পরিবহনে নেওয়া হচ্ছে দ্বিগুণের চেয়ে বেশি ভাড়া। জেলায় কোথাও চলতে দেখা যায়নি গণপরিবহন।

চাষাড়া মোড়

নারায়াণগঞ্জে সরেজমিন দেখা যায়, সকাল ১০টার দিকে সাইনবোর্ড, চিটাগং রোডে গণপরিবহন না থাকলেও রিকশা–ভ্যান, সিএনজিচালিত অটোরিকশা এবং ব্যক্তিগত গাড়ির আধিক্যের কারণে দেখা দিয়েছে যানজট। সাইনবোর্ডে ট্রাফিক পুলিশের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা বলছেন, সকাল থেকেই এই রোডে যানজট লেগে আছে। থেমে থেমে চলছে গাড়ি। লকডাউন হলেও সাধারণ মানুষ আগের মতো বাইরে এসেছেন।

ভোগান্তি

গণপরিবহন বন্ধ থাকায় নারায়াণগঞ্জের বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে অফিসগামী যাত্রীদের দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। এতে বেড়েছে দুর্ভোগ। বাস স্ট্যান্ডে বেসরকারি চাকরিজীবী মহিউদ্দিন ইসলামের সঙ্গে কথা হয়। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে নারায়াণগঞ্জ বুলেটিনকে বলেন, ‘এটা কিসের লকডাউন। সরকারি-বেসরকারি সব অফিস খোলা, গণপরিবহন বন্ধ থাকলে মানুষ যাবে কীভাবে? যদি লকডাউন দিতে হয় সবকিছু বন্ধ করে দেন। এ ধরনের সিদ্ধান্ত সাধারণ মানুষের ওপর অত্যাচার করা ছাড়া আর কিছু না।’ 

একটি গাড়ি আসলে হুমড়ি খেয়ে পড়ছে যাত্রীরা

আরেক অফিসগামী যাত্রী জিসানুল হক বলেন, ‘আমি চাকরি করি বেসরকারি একটি মার্কেটিং কোম্পানিতে। রামপুরা থেকে গুলিস্তান যেতে রিকশা ছাড়া অন্য কোনো বাহন নেই। রিকশায় ভাড়া চাওয়া হচ্ছে ২০০ থেকে ২৫০ টাকা। যেখানে বাসের ভাড়া মাত্র ২০ টাকা। একই অবস্থা সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও মোটরসাইকেলে। সরকারের এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে সাধারণ মানুষের কথা ভাবার দরকার ছিল।’

সাইনবোর্ড

বাড়তি ভাড়া নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে সিএনজি চালক নিজাম উদ্দিন বলেন, ‘বেশি ভাড়া নিতেছি না, যা ভাড়া তাই চাইতেছি। একজন যাত্রী সাইনবোর্ড ত থেকে চাষাড়া যাইব তারে তো আমি ২০-৩০ টাকায় নিয়ে যাইতে পারুম না। যেটা ন্যায্য তাই নিতেছি।’ 

 

চিটাগাং রোড

দেশে করোনা সংক্রমণ বাড়ার কারণে সরকারের নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ থেকে শুরু হয়েছে সীমিত আকারে লকডাউন। আগামী বৃহস্পতিবার ১ জুলাই থেকে ৭ দিনের সর্বাত্মক লকডাউন দেওয়া হবে। লকডাউনের ফলে সারা দেশে বাসা, ট্রেন, লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin