কাশীপুরে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে আসন্ন ঈদুল আজহার পশুর হাট

শেয়ার করুণ

কাশীপুর ইউনিয়নের নাজমুল হাসান সাজনের সার্বিক পরিচালনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে হাটের বেচাকেনা। ক্রেতাদের সমাগম বাড়ায় এবং তুলনামূলক দামে একটু কম হওয়ায় গরুর বিক্রয় কিছুটা বেড়েছে। এতে খামারিদের মুখে কিছুটা হাসি ফুটেছে।সরেজমিনে দেখা যায়,সারাদিন হাটে পশু বেচাকেনা হচ্ছে।

কাশীপুর ইউনিয়নের হাজীপাড়া গ্রামের ক্রেতা মাহবুল ইসলাম জানান, লকডাউন শিথিল হওয়ায় গত দুই-তিনের হাটের চেয়ে আজ কাশীপুর হাটে গরুর বাজার জমে উঠেছে। এতে ক্রেতা- বিক্রেতাদের মুখে হাসি ফুটেছে। এর কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অনেকেই পশুকে খাওয়ানো ও রাখার বিষয়টি ঝামেলা মনে করে শেষ দিকে গরু কিনছেন। তাই এখন ক্রেতা বেশি।’

এদিকে হাট পরিচালনার দায়িত্বপ্রাপ্ত নাজমুল হাসান সাজন জানিয়েছেন, সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে হাট পরিচালনা করে হচ্ছে। আর ব্যাপারীদের থাকা খাওয়ার সার্বিক ব্যবস্থা করায় হাটটি ইতিমধ্যে জনপ্রিয় হয়েছে ক্রেতা বিক্রেতা উভয়ের কাছেই।

নিউজটি শেয়ার করুণ