কলাগাছিয়া ইউনিয়নে দেলোয়ার চেয়ারম্যান এর সাথে ই কাজ করতে চানঃ সেলিম ওসমান

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

কলাগাছিয়া ইউনিয়নের উন্নয়ন শীর্ষক মতবিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৫ ফেব্রুয়ারী ( শুক্রবার ) বিকেলে বন্দর উপজেলার ঘাড়মোড়া ঈদগাহ্ মাঠ প্রাঙ্গনে এ আয়োজন করা হয়। কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসেন প্রধান’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম সেলিম ওসমান।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্যে কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসেন প্রধান বলেন, ‘আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া ও কৃতজ্ঞতা আমার পিতাতুল্য সেলিম ওসমান আমার ইউনিয়নে এসেছেন। ২০১১ সালে আমি নির্বাচন শুরু করি। সেখানে আমি বলেছিলাম, মাকে ভালোবেসে কলাগাছিয়া ইউনিয়নের সন্তান আমি, এখানে ফিরে আসি। আজ আমি বলতে চাই, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন আমার মা। আমার মাকে আমি আমার মতো সাজাবো। ওসমান পরিবারের দিক নির্দেশনায় আমি ২০১৬ সালে দ্বিতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই। বাংলাদেশে এমন কোন চেয়ারম্যান নেই, যেখানে মেম্বারদের সাথে চেয়ারম্যানের মতে পার্থক্য হয় না। কিন্তু, আমার ইউনিয়নে আমার সাথে কোন মেম্বারের দ্বিমত ছিল না’।

এসময় ২০১১ সাল থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত কলাগাছিয়া ইউনিয়নের উন্নয়নের চিত্র সকলের সামনে তুলে ধরে চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসেন প্রধান । তিনি বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের ওসমান পরিবারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় আমার ইউনিয়নে ২০১১ সাল থেকে ২১ সাল পর্যন্ত ১১৩ কোটি ৬৯ লাখ ৩৪ হাজার ৬৭৯ টাকা খরচ করতে পেরেছি’।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম সেলিম ওসমান বলেন, ‘আমি বলছি না নির্বাচন হবে না। নির্বাচন অবশ্যই হবে। অর্থের জন্য নয়, যাকে দিয়ে উন্নয়ন হবে তাকে নির্বাচিত করবেন। দেলোয়ার এই ইউনিয়নের অসম্পূর্ণ কাজগুলো সম্পন্ন করবে, সহযোগীতা লাগলে আমি করবো। দেলোয়ার না থাকলে আমি আজ কাজিমউদ্দিন ভাইকে নির্বাচন করতে বলতাম। তিনি অনেক বড় নেতা, সারা বাংলাদেশের নেতা। এবার দেলোয়ার নির্বাচন করবে, যদি আমাকে মানে তাহলে আগামীতে দেলোয়ার নির্বাচন করবে না। আগামীতে আমরা কাজিমউদ্দিন ভাইকে দেখতে চাই। আগামীতে যেকোন কাজ হবে, দেলোয়ার ও কাজিমউদ্দিন ভাই একসাথে করবো। সেটাকে আমি ও রশীদ ভাই মনিটরিং করবো। কাজিমউদ্দিন ভাইকে ঘোষণা না দেয়ার কারণে আজকে আমি কষ্ট পাচ্ছি’।

এসময় সেলিম ওসমান আরও বলেন, ‘নির্বাচন হবে না এই কথা সেলিম ওসমান বলে না। সেলিম ওসমান এটাই বলে, আমি আমার ৫ সন্তান বলেন বা ভাই, আমি বন্দরের উন্নয়নের জন্য তাদেরকে পুনরায় আপনাদের কাছে চাই’।

এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ রশিদ, বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিমউদ্দিন প্রধানসহ কলাগাছিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডের মেম্বারসহ আরও অনেকে।

সূত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin