কম ঘুম স্ট্রোকের অন্যতম কারণ

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

প্রতিদিন কম সময় ঘুমাচ্ছেন, জানেন কি কি ক্ষতি হতে পারে। এ বিষয়ে গবেষকরা বলছে, দীর্ঘদিন ধরে ৬ ঘণ্টার কম সময় ঘুমালে শরীরের একাধিক ক্ষতি হয়। এটা সব সময়ে চলতে থাকলে তা মানুষের আয়ুর ওপর প্রভাব ফেলে।

গবেষণার জন্য দলটি স্পেনের ৪ হাজার নারী-পুরুষের জরিপ চালায়, এদের প্রত্যেকের বয়স ছিল গড়ে ৪৬ বছর। এদের কারোরই হৃদরোগের কোনো ইতিহাস ছিল না। রাতে ঘুমানোর আগে এদের প্রত্যেকের শরীরে লাগানো হয় আর্টিগ্রাফ নামের একটি ছোট্ট যন্ত্র, যেটি প্রত্যেকের ঘুমের দৈর্ঘ্য, ঘুমের প্রকৃতির তথ্য সংগ্রহ করে। পরপর সাত রাত ধরে তাদের ওপর এই জরিপ চালানো হয়। ঘুমের মধ্যে কে কতবার ওঠে বা কেমন নড়াচড়া করে সেসব তথ্যও সংগ্রহ করা হয়।

তাদের দাবি, দীর্ঘদিন ধরে ছয় ঘণ্টা বা তার কম সময় ঘুমালে ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, ওবেসিটি এবং কোলেস্টেরল বৃদ্ধির মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়।

গবেষকরা বলছে, ছয় ঘণ্টার কম ঘুমালে বা বারবার ঘুমের মধ্যে জেগে যাওয়ার কারণে ধমনীতে এক ধরনের চর্বিজাতীয় প্রাচীর তৈরির আশঙ্কা সৃষ্টি করে। ধমনীতে প্রাচীর তৈরির ফলে রক্ত চলাচলে বাধা সৃষ্টি হলে তা স্ট্রোক, হজমে সমস্যা, স্থূলতা, ব্যাথা এমনকি হৃদরোগ পর্যন্ত হতে পারে।

সম্প্রতি আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলোজি জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণাপত্রে এতথ্য জানানো হয়েছে। গবেষণা দলের প্রধান হোসে অরদোভাস বলেন, কম ঘুম সরাসরি হার্টের ওপর নয় বরং তা শরীরে অ্যাথারোক্লেরোসিস সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখে।

সূত্রঃ প্রাইম বিডি নিউজ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin