কবে শুধরাবে নগরীর সুগন্ধা বেকারী,আবারও গুনলো জরিমানা !

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জ নগরীর সুগন্ধা বেকারীকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করেছে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ। ১১ জানুয়ারী দুপুরে নগরীর গলাচিপা এলাকায় প্রতিষ্ঠানটির কারখানায় অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা করা হয়। এসময় খাদ্য সামগ্রী উৎপাদনে ব্যবহৃত মোড়কবিহীন রং ও কেমিক্যালে আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ না থাকায় এই আর্থিক জরিমানা করা হয়।

অভিযানের নেতৃত্ব দেন বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জ্যোতিস্বর পাল। এসময় উপস্থিত ছিলেন- মনিটরিং অফিসার আমিনুল ইসলাম, খাদ্য বিশ্লেষক ফারহানুল আলম, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারি কমিশনার ফারজানা আক্তার ও সদর উপজেলা খাদ্য পরিদর্শক শাহ্জাহান হালদারসহ জেলা পুলিশের প্রতিনিধি দল।

অভিযান প্রসঙ্গে মনিটরিং অফিসার আমিনুল ইসলাম সুমন বলেন, সরবরাহকৃত প্রস্তুতকারক খাদ্য ও পণ্য সামগ্রী উৎপাদনের পর এর মোড়ক ও আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের নাম থাকতে হয়। কিন্তু এই কারখানটিতে রংসহ বিভিন্ন ধরণের অবৈধ কেমিক্যাল মিশিয়ে খাদ্য সামগ্রী উৎপাদন করতে দেখা যায়। যেগুলোর কোন মোড়ক এবং আমদানিকারকের নাম পরিচয় নেই। যার কারণে উৎপাদিত এসব খাদ্য সামগ্রী ভেজাল ও অবৈধ বলে গন্য করে নিরাপদ খাদ্য আইন ২০১৩ এর ৩২ ধারা অনুযায়ি দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সুগন্ধা বেকারির এই কারখানাটিতে এর আগে গত কয়েক মাসের ব্যবধানে দুই দফা অভিযান চালিয়ে পাঁচ লাখ ও দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হলেও স্থায়ীভাবে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের মনিটরিং অফিসার জানান, যেসব অসঙ্গতি এখানে পাওয়া গেছে সেগুলো সংশোধন করতে মালিকপক্ষকে মুচলেকাসহ নির্ধারিত সময় দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে মনিটরিংয়ের সময় আবারো এ ধরনের অসঙ্গতি পাওয়া গেলে কারখানাটি সিলগালা করে দেয়া হবে। সর্বসাধারণের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য জেলার অন্যান্য রেস্তোরাঁ ও খাদ্য উৎপাদনকারক কারখানাগুলোতে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin