একে অপরকে বলছেন ‘খুনি’ দুই জনপ্রতিনিধির দ্বন্দ্বে উত্তপ্ত বন্দর

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

এক জন জেলা পরিষদের সদস্য, আরেক জন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। এই দুই জনপ্রতিনিধির দ্বন্দ্বে পুরো এলাকা আতঙ্কে। উত্তপ্ত মুছাপুর ও সিটি করপোরেশনের ২৭ নং ওয়ার্ড এর কুড়িপাড়া এলাকা।

দুই পক্ষ পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করে। এক পক্ষ অপর পক্ষের নানা অপকর্মের ফিরিস্তি তুলে ধরছেন। এক পক্ষে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য মো. আলাউদ্দিন, অপর পক্ষে মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মাকসুদ হোসেন।

একটি কিংবা দু’টি নয়, ৩০ থেকে ৩৫টি খুনের অভিযোগ উঠেছে বন্দরের মুছাপুর ইউপির চেয়ারম্যান মো. মাকসুদ হোসেন ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে। এছাড়াও রয়েছে ভূমিদস্যুতা আর অর্থ আত্মসার্থের অভিযোগ।

শনিবার (৩ অক্টোবর) দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে ‘হত্যা, ভূমিদস্যুতা ও অর্থ আত্মসার্থের অভিযোগ’ তুলে এ তথ্য প্রকাশ করেন জেলা পরিষদের সদস্য মো. আলাউদ্দিন। এ সময় চেয়ারম্যানকে আখ্যা দিয়েছেন ‘রাজাকার পুত্র’ বলে।

এদিকে, সেই বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া মুছাপুর ইউপির চেয়ারম্যান মো. মাকসুদ হোসেন বলেছেন, জেলা পরিষদের সদস্য আলাউদ্দিন আমার বিরুদ্ধে যা বলেছে, সবই মিথ্যা। সে নিজেই একজন খুনি। যেখানেই যায়, সেখানেই খুন-খারাবি করেন। ‘মুক্তিযোদ্ধা আলাউদ্দিন’র খুনির পরিকল্পনাকারী ও ১নং আসামীও উনি। এছাড়াও বিভিন্ন সময় নানা স্থানে গিয়ে ভূমিদস্যুতা আর অর্থ আত্মসার্থ করেছেন। এখন নেমেছেন মসজিদের নাম ব্যবহার করে কুড়িপাড়া বাজার দখলে নেওয়ার মিশনে। আমি থাকলে সেটা সম্ভব নয়, তাই এমন অপপ্রচার চালাচ্ছেন।

জেলা পরিষদের সদস্য মো. আলাউদ্দিন ও ইউপির চেয়ারম্যান মো. মাকসুদ হোসেনের পাল্টাপাল্টি বক্তব্যে বেশ উত্তপ্ত পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে ওই এলাকায়। ২টি পক্ষের মধ্যে ক্রমশ বাড়ছে আক্রশ। যে কোন সময় ঘটতে পারে ‘অনাকাঙ্খিত’ ঘটনা।

এরই মধ্যে জেলা পরিষদের সদস্য আলাউদ্দিনকে মুছাপুরে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেছেন চেয়ারম্যান মো. মাকসুদ হোসেন। গণমাধ্যমের কাছে বলেছেন, ‘যদি সাহস থাকে, কুড়িপাড়ায় এসে আলাউদ্দিনকে সংবাদ সম্মেলন করতে বলুন, আমারও সেই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকবো। সে এত ভালো মানুষ, আমিও দেখে নিবো, সে কিভাবে জীবনে কোন দিন কুড়িপাড়ায় আসে’।

সূত্রঃ লাইভ নারায়াণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin