উত্তরায় ধর্ষকের বিচারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

দেশের বিভিন্নস্থানে নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে রাজধানীর উত্তরায় শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করে দোষীদের শাস্তি দাবি করেছেন। সিলেটে এমসি কলেজে নববধূকে গণধর্ষণ ও নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে এক নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনার আজ সোমবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে হাউজ বিল্ডিং চৌরাস্তা এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। এসময় ছাত্র-ছাত্রীরা ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’ স্লোগান দেন।

আগামীকাল (মঙ্গলবার) একই জায়গায় আবার সড়ক অবরোধ কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। গতকাল রোববার এখানেই শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করে। অবরোধ কর্মসূচিতে প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেয়। উত্তরা পশ্চিম থানার উপপরিদর্শক (এএসআই) মেহেদী হাসান বলেন, শিক্ষার্থীরা ছত্রভঙ্গ হয়েছিল। কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা যাতে নাহয় সে জন্য তাঁরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেছেন। এশিয়ান ইউনিভার্সিটির ছাত্রী রত্না জানান, ‘ধর্ষক ও নির্যাতনকারীদের শাস্তির দাবিতে আমরা রাজপথে নেমেছি। তাদের শাস্তি নিশ্চিত করেই ঘরে ফিরব ইনশাআল্লাহ।’ উত্তরা জোনের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার শচীন মৌলিক জানান, ‘মহাসড়ক ছেড়ে দিতে ছাত্র-ছাত্রীদের অনুরোধ করছি। তবে বিশৃঙ্খলা করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ প্রসঙ্গত, গত ২৫ সেপ্টেম্বর এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হন এক নববধূ। রাত সাড়ে ৮টার দিকে স্বামীর কাছ থেকে ওই গৃহবধূকে জোর করে তুলে নিয়ে ছাত্রাবাসে ধর্ষণ করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় কলেজের সামনে তার স্বামীকে বেঁধে রাখা হয়।

আগামীকাল (মঙ্গলবার) একই জায়গায় আবার সড়ক অবরোধ কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। গতকাল রোববার এখানেই শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করে। অবরোধ কর্মসূচিতে প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেয়। উত্তরা পশ্চিম থানার উপপরিদর্শক (এএসআই) মেহেদী হাসান বলেন, শিক্ষার্থীরা ছত্রভঙ্গ হয়েছিল। কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা যাতে নাহয় সে জন্য তাঁরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেছেন। এশিয়ান ইউনিভার্সিটির ছাত্রী রত্না জানান, ‘ধর্ষক ও নির্যাতনকারীদের শাস্তির দাবিতে আমরা রাজপথে নেমেছি। তাদের শাস্তি নিশ্চিত করেই ঘরে ফিরব ইনশাআল্লাহ।’ উত্তরা জোনের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার শচীন মৌলিক জানান, ‘মহাসড়ক ছেড়ে দিতে ছাত্র-ছাত্রীদের অনুরোধ করছি। তবে বিশৃঙ্খলা করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ প্রসঙ্গত, গত ২৫ সেপ্টেম্বর এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হন এক নববধূ। রাত সাড়ে ৮টার দিকে স্বামীর কাছ থেকে ওই গৃহবধূকে জোর করে তুলে নিয়ে ছাত্রাবাসে ধর্ষণ করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় কলেজের সামনে তার স্বামীকে বেঁধে রাখা হয়।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin