ইউপি চেয়ারম্যানরা বিচার করতে পারবেন নাঃ সেলিম ওসমান

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও ব্যবসায়ী নেতা একেএম সেলিম ওসমান বলেছেন, নীট সেক্টর অসহায় হয়ে পড়লে শিল্পনগরী নারায়ণগঞ্জ অচল হয়ে পড়বে। এখানে প্রায় ৩০ লাখ শ্রমিক কাজ করে পরিবার পরিজন নিয়ে বেঁচে আছেন। বর্তমানে নানামুখি সংকটে রয়েছে নীট শিল্প। করোনায় সময় চালু রেখে বিশাল ক্ষতির হাত থেকে নীট সেক্টরকে রক্ষা করা সম্ভব হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সব কারখানা সচল রাখতে সক্ষম হয়েছি বলেই অভাব আমাদের ছুঁতে পারেনি। সামনের শীত মৌসুমের জন্য আমাদেরকে সতর্ক হতে হবে। মদনগঞ্জের শান্তিরচরে শিল্পাঞ্চল করার আবেদন করার ২১ দিনের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পেয়ে গেলাম। কিন্তু দেশের অন্যান্য অঞ্চলে শিল্পাঞ্চল গড়ে উঠলেও শান্তির চরে এখনো শিল্পাঞ্চল গড়ে তোলা সম্ভব হয়নি। শান্তির চরে শিল্পাঞ্চল হলে কয়েক লাখ লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

সেলিম ওসমান বলেন, আমরা অপরাজনীতি করব না। আমাদের জবাবদিহিতা থাকতে হবে। ইউপি চেয়ারম্যানরা বিচার করতে পারবেন না। বিচার করতে হলে আগে থানায় জিডি করতে হবে। আপনাদের কাজ জনগনের সেবা করা। জনপ্রতিনিধি হয়ে মানুষের অশান্তি করা সহ্য করা হবে না। ডিস লাইন নিয়ে ভাগাভাগি করে মারামারি করা বন্ধ করেন। জনপ্রতিনিধিরা কোনভাবেই ডিস লাইনে লিপ্ত হবেন না।

শনিবার ১৭ অক্টোবর শনিবার বেলা ১১টায় বন্দর উপজেলা নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন।

বন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শুক্লা সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এম এ রশিদ, সেলিম ওসমানের সহধর্মিনী বেগম নাসরিন ওসমান, এমএ রশিদের সহধর্মিনী বেগম রোকেয়া সুলতানা লাকী, সহকারী কমিশনার(ভুমি) আসমা সুলতানা, বন্দর থানার ওসি ফখরুদ্দীন ভূইয়া, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সানাউল্লাহ সানু, ছালিমা হোসেন শান্তা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিমউদ্দিন প্রধান, বন্দর ইউপি চেয়ারম্যান এহসানউদ্দিন আহমেদ , কলাগাছিয়া ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন প্রধান প্রমুখ।

সূত্রঃনিউজ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin