ইউনিয়ন পর্যায়ে টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি শেষ প্রায়

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ইউনিয়ন পর্যায়ে ৬ দিন টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি শেষ পর্যায়ে। স্বাস্থ্য কর্মীদের প্রশিক্ষণের কার্যক্রমও শেষ পর্যায়ে। উপজেলায় উপজেলায় হাজার হাজার মানুষ করেছেন রেজিষ্ট্রেশনও। এরই মধ্যে ভ্যাকসিনের স্বল্পতার কারণে সরকার টিকাদান কর্মসূচির সময়সীমা ছয় দিন থেকে কমিয়ে এক দিন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

একজন শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তা জানান, ‘ভ্যাকসিনের ডোজের স্বল্পতার কারণে ৭ থেকে ১২ আগস্টের টিকাদান কর্মসূচির সময়সীমা কমিয়ে আনা হয়েছে। আপাতত টিকা দেওয়ার ব্যাপক উদ্যোগটি শুধুমাত্র ৭ আগস্ট (শনিবার) পরিচালিত হবে।

নারায়ণগঞ্জ জেলায় ৩৯টি ইউনিয়ন পরিষদ, ৫টি পৌরসভা ও ১টি সিটি করপোরেশন আছে। ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডের কমপক্ষে ২০০ জনকে এই টিকার আওতায় আনার পরিকল্পনা ছিল সরকারের।

ওই কর্মকর্তা জানান, ‘এখন পুরো ইউনিয়নে ৩০০ জনকে টিকা দেওয়া হবে। এ ক্ষেত্রে বয়স্ক, নারী ও প্রতিবন্ধীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।’

ব্যাপারটি নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ সিভিল সার্জন মোহাম্মদ ইমতিয়াজ. ‘৭ থেকে ১২ আগস্টের টিকাদান কর্মসূচির সময়সীমা কমিয়ে আনা হয়েছে। আপাতত টিকা দেওয়ার ব্যাপক উদ্যোগটি শুধুমাত্র ৭ আগস্ট (শনিবার) পরিচালিত হবে। ওই দিন জেলার ইউনিয়ন, পৌরসভা ও সিটি করপোরেশনের টিকা দান কেন্দ্র গুলো থেকে ৪৩ হাজার করোনার টিকা দেওয়ার কথা রয়েছে।’

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin