ইউনিয়নেই মিলবে পুলিশের সেবা

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

সাধারণ ডায়েরি করতে কিংবা অভিযোগ দিতে এখন আর যেতে হবে না থানায়। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নেই মিলবে পুলিশের সেবা। এ জন্য মাদারীপুরে প্রতিটি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় চালু করা হয়েছে বিট পুলিশিং। নিয়োগ দেয়া হয়েছে একাধিক পুলিশ কর্মকর্তাও। জেলা পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তারা বলছেন, প্রান্তিক পর্যায়ে মানুষকে সেবা দেয়ার লক্ষ্যে পুলিশের মহাপরিদর্শক হাতে নিয়েছেন এই কার্যক্রম।

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার বাহাদুর থেকে পাঁচ্চর বিট পুলিশিং কার্যক্রমে সেবা নিতে আসেন সোলাইমান শেখ। কষ্ট করে তাকে যেতে হয়নি সংশ্লিষ্ট থানায়। বাড়ির কাছেই কাঙ্ক্ষিত সেবা পেয়ে খুশি তিনি।বিট পুলিশিং সেবাগ্রহীতা সোলাইমান শেখ বলেন, ছোটখাটো বিষয় নিয়ে থানায় যেতে হয়, কিন্তু সেখানে না গিয়ে এখানেই সেই কাজ করা যাচ্ছে।শুধু সুলাইমান শেখ নন, তার মতো শত শত মানুষ পাচ্ছেন এ সুবিধা।

তবে, একসময়ে সাধারণ ডায়েরি কিংবা অভিযোগ দিতে থানায় গিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হতো। অনেক সময় সেবা না পেয়ে ফিরে আসতেন অনেকেই। কিন্তু পাল্টে গেছে সেই প্রেক্ষাপট। জেলার প্রতিটি ইউনিয়নে ও পৌরসভায় বিট পুলিশিং সেবা চালু করা হয়েছে। প্রত্যেকটি বিটে নিয়োগ দেয়া হয়েছে একজন উপপরিদর্শকসহ চারজন পুলিশ সদস্য। সাধারণ মানুষ অভিযোগ দিয়ে তাৎক্ষণিক পাচ্ছেন সমাধান।থানার অফিসার ইনচার্জদের দাবি, বিট কেন্দ্রের পাশাপাশি হয়রানি ও ভোগান্তি কমাতে মোবাইলের মাধ্যমেও ২৪ ঘণ্টা সেবা পাচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ বলেন, মানুষের সাধারণ ডায়েরিগুলো এখানে সমন্বয় করা হয়। এতে করে হয়রানিও কম হয়।জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান, প্রান্তিক পর্যায়ে পুলিশের সেবা পৌঁছে দিতেই চালু করা হয়েছে এই কার্যক্রম।জেলার সাড়ে ১২ লাখ মানুষকে সেবা দিতে ৬৭টি পয়েন্টে চালু করা হয়েছে এই বিট পুলিশিং।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin