আড়াইহাজারে দুবাই প্লাজায় গ্যাসের বিস্ফোরণ, ৩ জন দগ্ধ

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে একটি বহুতল বানিজ্যিক ভবনে অবস্থিত রেষ্টুরেন্টের রান্না ঘরে জমে থাকা গ্যাস বিস্ফোরণে আগুন লেগে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপকসহ তিনজন দগ্ধ হয়েছেন। বিস্ফোরণে রেষ্টুরেন্টের আসবাবপত্রসহ বিপুল পরিমান মালামাল ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। আগুনে দগ্ধ ম্যানেজার সহ দুইজনকে মূমূর্ষৃ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে উপজেলার আড়াইহাজার বাজারে বানিজ্যিক ভবন দুবাই প্লাজার ষষ্ঠ তলার ছাদে অবস্থিত রয়েল রেষ্টুরেন্টে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসি সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার দুপুরে রেষ্টুরেন্টের ম্যানেজার ফরিদ (৪৫) ও তার সহকারি সামসুল (২২) সহ তিনজন আগুনে ঝলসে যায়। তাদের মধ্যে ফরিদ ও সামসুলকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। তবে তাদের অবস্থা মারাত্মক হওয়ায় কর্তব্যরত ডাক্তার তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বার্ণ ইউনিটের পাঠান। ঘটনার সময় রেষ্টুরেন্টে অবস্থান করা বেশ কয়েকজন কাষ্টমার ও কর্মচারীরা ছুটোছুটি করে লিফট ও সিঁড়ি বেয়ে নিচে নেমে এসে আগুন থেকে আত্মরক্ষা করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রান্না ঘরে বিস্ফোরণের ফলে আগুনে ফরিদ ও সামসুল এর দেহে ঝলসে যায়। তাদের গায়ের পোশাকও পুঁড়ে যায়। বিস্ফোরণের সময় বিকট শব্দে দুবাইপ্লাজা কেঁপে ওঠে।

আড়াইহাজার ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার শাজাহান জানান, দুবাই প্লাজার রয়েল রেষ্টুরেন্টে রান্না ঘরে চূলা থেকে নির্গত গ্যাস জমাট বেঁধে থাকে। কক্ষটির দরজা জানালা বন্ধ থাকা অবস্থায় চুলায় আগুন ধরাতে গেলে রান্না ঘরে আগুন ছড়িয়ে ঘরটি বিস্ফোরিত হয়। দরজা জানালা, কাঁচ ও দেয়াল ভেঙ্গে ধসে পড়ে। এ ব্যাপারে তদন্ত করা হচ্ছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমান তদন্তের পর নিশ্চিত করে বলা যাবে।

আড়াইহাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: নজরুল ইসলাম বলেন, রেস্টেুরেন্টে বিস্ফোরণ ও আগুনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। তিনজন দগ্ধ হয়েছে এবং তাদের মধ্যে দুইজনকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। এ ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কেউ থানায় অভিযোগ দেয়নি। তবে আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।

এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারি পরিচালক আবদুল্লাহ আল আরেফিন বলেন, রেস্টেুরেন্টটির রান্না ঘরের চূলা থেকে গ্যাস বের হয়ে পুরো ঘরে জমাট বেঁধে থাকে। এ অবস্থায় কেউ চূলা জ্বালাতে গেলে আগুন লেগে বিস্ফোরণ হয়। এই বিস্ফোরণে তিনজন দগ্ধ হলেও প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার ফরিদের অবস্থা বেশী আশংকাজনক। তাকে ঢাকায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে জানতে পেরেছি।

সূত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin