আর কত পরীক্ষার পর মূল্যায়িত হবেন সাবেক ভিপি রাজীব?

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

দীর্ঘ দিনের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে গত ৩১ শে ডিসেম্বর ঘোষিত হয় নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি । কমিটিতে অনেক নাম সর্বস্ব নেতাদের নাম আসলেও যায়গা হয়নি জেলা ছাত্রদলের সাবেক আহবায়ক মাসুকুল ইসলাম রাজীবের।

জেলায় যখন ক মিটি নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ চ লছে তখন একজন বিএনপি কর্মী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুলে ধরেছেন অপ্রাপ্তির এক হতাশার কথা। পাঠকদের সুবিধার্থে নিচে তুলা ধরা হলো সেই কথা “নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির নবগঠিত আহব্বায়ক কমিটিতে আজাদ বিশ্বাসের মতো

রাইফেলস ক্লাবের ডিউটি ম্যান, প্রকাশ্যে দালালি করা লোকদের জায়গা হয় আর মাসুকুল ইসলাম রাজিব ভাইয়ের মতো রাজপথে পরিক্ষিত জিয়ার সৈনিকদের জায়গা হয়না? এটা আমার কাছে দুঃখজনক মনে হয়না লজ্জাজনক মনে হয়। সাবেক ভিপি-নারায়ণগঞ্জ সরকারি তোলারাম কলেজ ছাত্র-ছাত্রী সংসদ। * সাবেক আহ্বায়ক- নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদল। * সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক -কেন্দ্রীয় ছাত্রদল। * সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক -নারায়নগঞ্জ জেলা বিএনপি। দীর্ঘদিন দলকে এই সার্ভিসগুলো দেওয়ার পরেও কি এই কমিটিতে ওনাকে রাখার জন্য যোগ্যবলে বিবেচিত হন না? ডেবিট ভাইকে হারিয়ে এখন বুঝতে পারেন কি হারিয়েছেন।

জাকির খানকে দূরে সরিয়ে রাখাতে দল কতটা দুর্বল হয়েছে অনেকেই উপলব্ধি করতে পারেন। রাজিব ভাইয়ের মতো তরুন সাহসী নেতাদের মাইনাস করার ফলটাও একদিন উপলব্ধি করতে পারবেন কিন্তু সেদিন কিছুই করার থাকবেনা। তরুন সাহসী যে,নেতারা উঠে আসবে তাদের সবাইকে এক এক করে দূরে সরিয়ে দিবেন আর দলকে শক্তিশালী করার কথা চিন্তা করবেন এটা কি হয়? এই অপরাজনীতি কবে বন্ধ হবে? এই নোংরামির শেষ কোথায় ?

মাইনাস ফর্মূলার অপরাজনীতি যতোদিন পর্যন্ত বন্ধ না হবে ততোদিন পর্যন্ত এইদল ঘুরে দাড়ানোর স্বক্ষমতা অর্জন করতে পারবেনা।“ বিএনপি কর্মীর এই স্ট্যাটাসই বলে দেয় নতুন কমিটি নিয়ে খুব একটা স্বস্তিতে নেই প্রায় একযুগ ধরে ক্ষমতার বাইরে থাকা দেশের অন্যতম এই রাজনৈতিক দল।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin