আবু ত্ব-হাকে খুঁজতে হাইকোর্টে লড়তে চান ব্যারিস্টার সুমন

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নিখোঁজ ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা মোহাম্মদ আদনানকে খুঁজে বের করতে আইনি সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। তিনি বলেন, আদনানের পরিবার চাইলে তাকে খুঁজে বের করতে হাইকোর্টে ‘হেবিয়াস কর্পাস’ রিট মামলা করতে চাই।

বুধবার (১৬ জুন) ফেসবুক লাইভে এসে ব্যারিস্টার সুমন এ ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানকে খুঁজে বের করার দায়িত্ব সরকারের। সরকারের কাছে দাবি তাকে খুঁজে বের করুন। এমনও হতে পারে সে নিজেও গুম হয়ে থাকতে পারে। অথবা যেকোনো বাহিনীর কাছে সে থাকতে পারে। যেখানেই থাকুক সরকারের উচিত ন্যায়বিচারের স্বার্থে আবু ত্ব-হাকে খুঁজে বের করা। আমি বলতে চাই আমাদের দেশের হাইকোর্টেও ব্যবস্থা আছে। হেবিয়াস কর্পাস (ব্যক্তিকে হাজির করতে রিট) রিট করতে পারি। 

তিনি বলেন, আবু ত্ব-হার পরিবার চাইলে এ বিষয়ে আমি আইনি সহায়তা দেব। তারা যদি আসেন আমি হাইকোর্টে এই রিট মামলা করতে চাই। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে যদি আবু ত্ব-হা থাকেন তাহলে হাইকোর্টের আদেশে অবশ্যই তাকে সামনে আনতে বাধ্য হবেন।

সুমন আরও বলেন, পরিশেষে আমি বলতে চাই আবু ত্ব-হাসহ চারজন নিখোঁজ আছেন। এখানে হারানো বিষয় না। বিষয় হচ্ছে, মানুষের মনে যদি এটা আসে এখানে গুম হয়ে গেলে আর বের হয় না মানুষ, তাহলে এটা ন্যায় বিচারের পরিপন্থী হবে।

গত ১০ জুন রংপুর থেকে ফেরার পথে রাজধানীর গাবতলী এলাকা থেকে ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান নিখোঁজ হন। নিখোঁজ হওয়ার পর তার স্ত্রী ও মা রংপুর ও ঢাকায় এ বিষয়ে পুলিশকে লিখিত অভিযোগ করেন।

এদিকে স্বামীকে ফিরে পেতে আবু ত্ব-হার স্ত্রী সাবেকুন নাহার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে খোলা চিঠি দিয়েছেন। চিঠিতে সাবেকুন নাহার প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। কারও সহযোগিতা না পেয়ে আপনার (প্রধানমন্ত্রী) বরাবর শেষ আশ্রয় প্রার্থনা করছি। আপনাকে মা ও আমার অভিভাবক মেনে আমার দু’হাত জোড় করে আমার স্বামী নিখোঁজ আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানকে ফিরে পাওয়ার আকুতি জানাচ্ছি।’ 

আবু ত্ব-হা কোনো অপরাধ করে থাকলে, তাকে আইনের কাছে সোপর্দ করা হোক। এছাড়া গত ১৫ জুন সাবেকুন নাহার স্বামীকে ফিরে পেতে পুলিশের মহাপরিদর্শক এবং র‍্যাবের মহাপরিচালক বরাবরও দুটি চিঠি দেন। তার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করে বলা হয়, রংপুর থেকে গাবতলী আসার পর তিনি তার সঙ্গীদেরসহ নিখোঁজ হন।

সূত্র: ঢাকা পোষ্ট

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin