আইভির সাথে একমত হলেন নওফেল

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জ শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে হকার বসা, অবৈধ গাড়ি পার্কিং, বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য আইনি পরিকাঠামো এবং প্রবিধান করতে সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে আহবান জানিয়েছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ও সিফরসি প্রকল্পের আইন বিষয়ক উপদেষ্টা মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

তিনি বলেন, ‘সিটি করপোরেশন ছোট ছোট আইন করে সেবার পরিধি বাড়তে পারে। এতে করে নগরবাসী সচেতন ও সেবাও পাবে। শুধু উন্নয়ন নয় এর সঙ্গে আইন ও সিটি করপোরেশনের সক্ষমতাও বৃদ্ধি পাবে।’

৯ ডিসেম্বর বুধবার দুপুরে শহরের নিতাইগঞ্জ এলাকায় সিটি করপোরেশনের নগর ভবনের সম্মেলন কক্ষে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের আইনি উপকরণ বিষয়ক পর্যালোচনা কর্মশালা অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত হয়ে প্রধান আলোচক হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।

জাইকার কারিগরি সহায়তা প্রকল্প ক্যাপাসিটি ডেপেলপমেন্ট অব সিটি কপোরেশন (সিফরসি) এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের সহায়তায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ‘সিটি করপোরেশন আইন ২০০৯ ও আইনি উপকরণ’ বিষয়ে এ পর্যালোচনা কর্মশালার আয়োজন করা হয়। কর্মশালায় ভিডিও কনফারেন্সে জুমের মাধ্যমে জাপান ও ঢাকা থেকে জাইকা ও স্থানীয় সরকার বিভাগের বিভিন্ন কর্মকর্তারা যোগ দিয়েছেন।

কর্মশালার মূল উদ্দেশ্যে হচ্ছে, সিটি করপোরেশনের আইনি পরিকাঠামো এবং প্রবিধান ও উপ-আইন প্রণয়ণ করার ক্ষমতা ও দায়িত্ব সম্পর্কে সিটি করপোরেশনের জনপ্রতিনিধি ও কর্মকর্তাদের সচেতনতা বৃদ্ধি করা।

ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের যুগ্ম সচিব ও সিফরসি প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ নূরে আলম সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে সিটি করপোরেশনের সম্মেলন কক্ষে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী এবং ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন জাপান থেকে জাইকা হেড কোয়াটার্স আকিরা মুনাকাতা, সিনিয়র অ্যাডভাইজার হিরোকি ওয়াটানাবো, রেপ্রেজেনটেটিভ জাইকা বাংলাদেশ অফিস প্রকল্পের টিম লিডার মিজ নাওকো আনজাই, ডেপুটি টিমলিডার টাইসুকে টকোকাসহ প্রকল্পের অন্যান্য কর্মকর্তারা।

এছাড়াও সিটি করপোরেশন উপস্থিত ছিলেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল আমিন, প্যানেল মেয়র-১ আফসানা আফরোজ বিভা, প্যানেল মেয়র-২ মতিউর রহমান মতি, প্যানেল মেয়র-৩ মিনোয়ারা বেগম, কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ্বাস, কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু সহ কর্মকর্তা-কর্মচারী ও অন্যান্য কাউন্সিলরা।

মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ‘মেয়র আইভীর বক্তব্যের সঙ্গে আমি শতভাগ একমত। বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে সমন্বয়হীনতা আছে। জেলা প্রশাসনকে ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে সহযোগিতা করতে হবে। সরকারি অন্যান্য দপ্তরের খাসের জমি দিতে না চাইলে মন্ত্রণালয়ে আবেদন করবেন। জেলা প্রশাসন সহযোগিতা না করলেও মন্ত্রণালয় থেকে সহযোগিতা পাবেন। আর অন্য কাউকে দিয়ে দিলে কেন সিটি করপোরেশনকে দেওয়া হলো না এ বিষয়ে জনস্বার্থে যে কেউ মামলা করতে পারবে। এ বিষয়ে আমি ঊর্ধ্বতনদের সঙ্গে কথা বলবো।’

সূত্রঃ নিউজ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin