আইনের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া আমার ব্যাকরণে নেই: এসপি

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

আমরা এক লাইনের বেশি কোন গাড়ি রাখবো না। আমরা সিটি কর্পোরেশন, হসপিটাল, ফায়ারসার্ভিস স্টেশনের বাইরে কোন গাড়ি রাখবো না। আবার আমরা কোন চাঁদাবাজিও করতে দিবো না। আমাদের কথা কাজ এটা হবে সবার সাথে সুন্দর ভাবে। কিন্তু আমার আইন প্রয়োগ এটা হবে কঠোর। এবং সঠিক কেউ যদি আইন না মানে আমি তার বিরুদ্ধে অত্যন্ত কঠিন হবো । আমি কিন্তু আইনের ক্ষেত্রে কোন ছাড় দেইনা। এটা আমার ব্যাকরণে নেই। আজ থেকে এই নিতাইগঞ্জের চেহারা কেমন হবে তা আপনারা ঠিক করবেন আমি চাইবো দুপুরের পর থেকে নিতাইগঞ্জের চেহারা পরিবর্তন হয়ে যায়। আগামীতে সবাই এই নিতাইগঞ্জকে যাতে আগের ঐতিহ্যবাহী নিতাইগঞ্জ হিসেবে জানে ওইভাবে গড়ে তুলুন।  

বৃহস্পতিবার দুপুরে নিতাইগঞ্জে ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম।

এসময় পুলিশ সুপার আরও বলেন, আপনারা জানেন গত বছর ডিসেম্বর মাসের ৩০ তারিখে এই নারায়নগঞ্জ জেলায় যোগদান করি। তার আগে প্রায় সারেতিন বছর মুন্সিগঞ্জ জেলায় কর্মরত ছিলাম এবং এই নিতাইগঞ্জ দিয়ে আমি সারে তিনবছর আসা যাওয়া করেছি। সুতরাং আমি এই নিতাইগঞ্জ এর সমস্যা এবং এই সমস্যার কি সমাধান সেটা আমরা কিছুটা হলেও অবগত আছি। কিন্তু আপনারা জানেন বিশ্বব্যাপি যে মহামারি কোভিড-১৯ এর কারণে আপনাদের সাথে আমরা বসতে পারি নাই। আমার ইচ্ছা ছিলো যোগদানের এক সপ্তাহের মধ্যেই আপনাদের সাথে বসার, কিন্তু সেটা হয়নি। মহান আল্লাহ আজকে আমাদের সুযোগ দিয়েছেন আমরা সবাই আজকে একসাথে বসেছি ।

নিতাইগঞ্জের যানজট নিরসনে পুলিশ প্রশাসনের সহায়তা করার উদ্দেশ্যে ব্যবসায়ী সমিতির উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসপি জায়েদুল আরও বলেন, আমি একটি কথাই বলবো আপনারা এখানে স্থায়ী, আপনারা যুগ যুগ এখানে ব্যবসা বাণিজ্য করেন। আপনাদের কর্মসংস্থান এখানে। আমরা যারা আপনাদের সেবা করতে আসি, আমরা অল্প সময়ের জন্য আসি। হয়তো আমার প্রায় ৯ মাস হয়ে গেলো আর হয়তো কিছুদিন পর বা যে কোন সময় আমার বদলি হতে পারে, এটাই স্বাভাবিক। সুতরাং, এখানকার যে সমস্যা সেটা সমাধান হলে সবচেয়ে বেশি লাভবান আপনারাই হবেন। আর সেটাই আমাদের কাছে সবচেয়ে খুশির খবর হবে।

হযরত খাদিজা (রা.) এর কথা স্মরণ করে পুলিশ সুপার বলেন, আপনারা জানেন আমরা যারা মুসলমান বা অন্য ধর্মের আছেন সবার ধর্মেই বইয়ে ব্যবসা নিয়ে সবচেয়ে বেশি উল্লেখ করা আছে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) তার সহধর্মীনি হযরত খাদিজা (রা.) তিনিও ব্যবসা করতেন। এই ব্যবসা করাটা আমি মনে করি ধর্মের কাজ। এটা মানুষের সেবার কাজ এটা ইবাদত হিসেবে নিতে হবে। আমার ব্যবসার কারণে কেউর ক্ষতি হক সেটা আমরা নিশ্চই চাইনা। আমরা নিশ্চই সঠিক ভাবে কাজটা করতে চাই।

নিতাইগঞ্জ ব্যবসায়ীদের অপূর্ণ অবদানের কথা উল্লেখ করে এসপি জায়েদুল আলম বলেন, করোনার মধ্যে নিতাইগঞ্জ থেকে আপনারা যে পরিমান পূরন দিয়েছেন, যে পরিমান পরিমান কাজ করেছেন, যার কারনে আমি মনে করি দেশের ভোজ্য পন্যের দাম বাড়ে নাই। এটা সম্ভব আমি মনে করি এই নিতাইগঞ্জ এর ব্যবসায়ী সমাজ ও শ্রমিক সমাজ। আপনারা রাতদিন কাজ করেছেন আমি দেখেছি আপনারা আপনাদের এইখানে সুরক্ষিত ভাবে নিজেদের ঝুকি নিয়েও কাজ করে গেছেন। আমরা দেখেছি এই নিতাইগঞ্জে কখনও এক লেনে ট্রাক থাকে কখোনো ২লেনে আবার কখোনো ৩ লেনে কখোনো পুরো রাস্তা জুড়ে থাকে। আমি মনে করি এটা আমাদের ব্যবস্থাপনা আমাদের ম্যনেজম্যন্ট এর ত্রুটির জন্য আমি কাউকে দোষারোপ করবো না। সিস্টেম যদি না থাকে সেখানে কোন কিছুতেই কাজ হয়না আমরা চাচ্ছি এটা সিস্টেমে নিতে একটা ব্যাবস্থাপনায় যেতে যদি এই ব্যাবস্থাপনা সঠিক ভাবে কাজ করে তাহলে আমরা এটায় বহাল থাকবো যদি ব্যবস্থাপনা চেন্জ করতে হয় তাহলে করবো আপনাদের সহমতে আমরা একটি পুনাঙ্গো ব্যাবস্থাপনায় যেতে চাই। আজকে যে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে তা মেনে নিবো।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(প্রশাসন) মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানসহ আরও উপস্থিত ছিলেন- নারায়ণগঞ্জ আটা ময়দা মিল মালিক সমিতির সভাপতি মো.মতিউর রহমান, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো.আসাদুজ্জামানসহ আরও অনেকে।

সূত্রঃলাইভ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin