অস্ত্রের ঝনঝনানিতে আইনজীবীদের ভোট ছিনতাই হয়েছে: সাখাওয়াত

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নির্বাচনের পূর্বেই আমরা এই ধরণের ঘটনার আশঙ্কা করে ছিলাম। যার জন্য আমরা জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসনসহ বিভিন্ন সংস্থাকে বলেছিলাম নির্বাচনের দিন যাতে ‘আদালতে যাতে বহিরাগতরা প্রবেশ করতে না পারে’। অথচ, সেই বহিরাগতদের এনে অস্ত্রের ঝনঝনানিতে আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ভোটকে ছিনতাই করা হয়েছে।

আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ফল প্রকাশ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে রোববার (৩১ জানুয়ারি) এ কথা বলেন বিএনপি পন্থী আইনজীবী সাখাওয়াত হোসেন খান।

তাঁর ভাষ্য, দীর্ঘদিন যাবত আমরা আদালতে এই পেশায়। বিভিন্ন সময় আমরা নির্বাচিত হয়েছি। অথচ গত ২৮ জানুয়ারীর মতো নির্বাচনে কখনো দেখা হয়নি। সেই দিনের নির্বাচন আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে কলঙ্কীত অধ্যায়ের সৃষ্টি করেছে।

সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, ‘এই সরকার আইনজীবীদের মতামতকে ভয় পেয়েছে। তাই তারা নারায়ণগঞ্জে সকল স্থান থেকে তাদের দলীয় নেতাদের কোর্টে এনে জীম্মী অবস্থায় পরিনত করেছিলো। তারা যে নেক্কার জনক ঘটনা ঘটিয়েছে, সেই নেক্কার জনক ঘটনা ভাষায় প্রকাশ করার মতো না, যেখানে আওয়ামী লীগ আইনজীবীদের উপর এবং সাংবাদিকদের উপর ছবি তোলার কারণে নির্যাতন চালিয়েছে। আইনজীবীদের জনমতকে ভয় পেয়েই তারা দলীয় নির্বাচন কমিশন ঘঠন করেছে।’

সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, ‘তাদের হামলায় আমাদের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী সহ ২০ জন আইনজীবী আহত হয়ে চিকিৎসাধীন। এটা একটি সভ্য দেশে কোন রাজনৈতিক দলের কাজ হতে পারে না। আওয়ামী লীগ প্রাচিন রাজনৈতিক দল হওয়ার পরেও আজকে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতিতে যে নেক্কার জনক ঘটনা ঘটিয়েছে । সেটার আমরা তীব্র নিন্দা জানাই। আমরা এই নির্বাচন প্রত্যাক্ষান করছি। পাশাপাশি এই নির্বাচন বাতিল করে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে নতুন করে নির্বাচন করার প্রতিশ্রুতির আহবান এবং নির্বাচন দিলেই চলবে না, আইনজীবী, সাংবাদিকদের উপরে যে হামলা হয়েছে, নির্যাতন করেছে, অবিলম্বে সেই নির্যাতনের বিচারের দাবি করছি।

সূত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin