অবশেষে উচ্ছেদ হলো মাদকের হটস্পট চানমারী বস্তি

শেয়ার করুণ

বহুল আলোচিত নারায়নগঞ্জের চানমারী বস্তি অবশেষে উচ্ছেদ করেছে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ। বস্তি উচ্ছেদে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে আশেপাশের এলাকার মানুষসহ জেলার বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ।

আজ বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলমের নেতৃত্বে এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হয়। উচ্ছেদ অভিযানে বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী অংশগ্রহণ করে। সকাল ১০টায় শুরু হওয়া এই অভিযানে ভেকুর সাহায্যে প্রায় ৫০০ ঘর গুড়িয়ে দেওয়া হয়।

দুপুর ১২ টায় জেলা পুলিশ সুপার গনমাধ্যমকে জানান, চানমারী বস্তি সম্পুর্ন সরকারী স্থাপনার উপর দাড়িয়ে থাকা একটি বস্তি। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, জেলা দায়রা জজ আদালত, পুলিশ সুপারের কার্যালয়সহ অসংখ্য স্থাপনার মাঝে এই বস্তিটি নারায়ণগবাসীদের জন্য বিব্রতকর। বিভিন্ন সময় এই বস্তিতে মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান মাদক উদ্ধার করা হয়, আটক করা হয় বিভিন্ন আসামীদের।

এসপি আরো জানান তিনি নারায়নগঞ্জে আসার পর বিভিন্ন সংস্থা,জনপ্রতিনিধি, পেশাজীবিদের সাথে মত বিনিময় করে এই বস্তি উচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তারই ধারাবাহিকতায় আজকের এই উচ্ছেদ অভিযান। তিনি আরো বলেন, উচ্ছেদের পর সড়ক ও জনপদ মন্ত্রনালয় এই বস্তির জায়গা দখলে নিয়ে নিবে।

সরেজমিনে গিয়ে উচ্ছেদ অভিযানে দেখা যায়, একটি ভেকুর সাহায্যে প্রায় পুরো বস্তিই গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উপস্থিতে পরিচালিত এই অভিযান কোনরকম প্রতিরোধ ছাড়াই সম্পন্ন করে জেলা পুলিশ। অসহায় বস্তিবাসীদের এ সময় দূরে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। নির্বাক মানুষগুলোর চোখে ছিল অজানা এক আতংক। কিছু কিছু পরিবারকে দেখা যায় ভেঙ্গে ফেলা ঘরের টিন,খুটি পিকআপ ভ্যানে তুলতে। তাদের সাথে কথা বলে জানা যায় গ্রামের পথেই পাড়ি জমাচ্ছেন তারা। পুলিশের উচ্ছেদ অভিযান আর দিনভর বৃষ্টি ভোগান্তি বাড়িয়েছে বস্তিবাসীদের।

এদিকে মাদকের হটস্পট চানমারী বস্তি উচ্ছেদের ঘটনায় স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছেন আশেপাশের এলাকার মানুষ। আবেদ হোসেন নামে এক ব্যবসায়ী জানান, দীর্ঘদিন পর প্রশাসন একটি সাহসী পদক্ষেপ নিয়েছে। এতে এলাকার মানুষের সাথে লেগে থাকা দীর্ঘদিনের অপবাদ ঘুচলো। এলাকার মানুষ এখন নির্বিঘ্নে চলাফেরা করতে পারবে। এলাকার আশেপাশে যাতে মাদকব্যবসায়ীরা আবারো আস্তানা না গাড়তে না পারে তার জন্য এলাকার পঞ্চায়েত কমিটি বাড়ি বাড়ি গিয়ে যাচাই করে বাসা ভাড়া দিতে অনুরোধ করছেন বাড়ির মালিকদের।

নিউজটি শেয়ার করুণ