অনলাইনের এই যুগে ‘ঘরে বসে আয়ের ৫ সহজ উপায়’

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

অনলাইনের এই যুগে যখন বেকারত্বের হার ক্রমেই বাড়ছে, তখন অনেকেই নতুন আয়ের পথ খুঁজতে মরিয়া। অনেকেই একটি চাকরি বা আয়ের পথ থাকা সত্ত্বেও বাড়তি ইনকামের জন্য ভিন্ন কাজ খোঁজেন। আসুন জেনে নেই অনলাইনে ঘরে বসে কীভাবে নতুন নতুন ওয়েবসাইটের সাহায্য নিয়ে নিত্য নতুন আয়ের পথ সুগম করা যায়। 

১। অনলাইন টিউটর
আপনি কী অঙ্কে-ইংরেজিতে ভালো? কঠিন বিষয় সহজ করে  বোঝানোর ক্ষমতা আছে? তাহলে নিচের ওয়েবসাইটগুলোতে ঢুঁ মেরে আসতে পারেন শিক্ষার্থীদের অনলাইনে পড়ানোর জন্য। 

২। ওয়েব ডিজাইনার
আপনি কি সিএসএস, এইচটিএমএল, জাভাস্ক্রিপ্ট এর কাজ জানা থাকলে আপনি ঘরে বসে ওয়েব ডিজাইনিং এর কাজ করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। উল্লেখ্য এখনো অনেক কোম্পানির কোন ভালো ওয়েবসাইট নেই। তাই ওয়েব ডিজাইনিং এর কাজ খোঁজার জন্য সময়টা বেশ ভালো। 

৩। হাতে তৈরি জিনিসপত্র বিক্রি
আপনার কি শিল্পজ্ঞান বেশ ভালো? বা আপনি মানুষের নিত্য চাহিদার জিনিসগুলোর বাজার পর্যবেক্ষণ করেন? তাহলে আপনার হাতে তৈরি জিনিসগুলো বিক্রির প্ল্যাটফর্ম তৈরি করুন অনলাইনে। নিজের তৈরি জিনিস বিক্রির এমন অজস্র উদাহরণ আপনি চাইলেই হাতের কাছেই খুঁজে পাবেন। 

৪। ভার্চুয়াল এসিট্যান্ট
এখনকার এই গতিময় জীবনে অনেক বড় প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের মিটিং এর আয়োজন থেকে শুরু করে খুঁটিনাটি কাজের জন্য নতুন লোক নিয়োগ দেওয়া হয়। ‘অপর্চুনিটি কস্ট’ বলা হয় বিষয়টিকে। নতুন লোক নিয়োগের ফলে কিছু অর্থ খরচের মাধ্যমে ওই কোম্পানিগুলোর আরও মূল্যবান সময় বেঁচে যায়। ফ্রিল্যান্সার ডট কম, ফ্যান্সিহ্যান্ডস ডট কম আপওয়ার্ক ডট কমের মত ওয়েবসাইটগুলোতে নিজের স্কিল পাবলিশ করুন এবং অপেক্ষা করুন সুযোগের। 

৫। কাস্টমার সার্ভিস
বিভিন্ন অনলাইন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠনের কাস্টমার কেয়ার সার্ভিস বহাল রাখার জন্য অনেক কর্মীর দরকার হয়। আপনার যদি যোগাযোগে দক্ষতা থাকে, বাসায় নীরব একটা কোন থাকে আর ইন্টারনেট লাইনটা যদি হয় গতিময় তাহলে আপনিও সহজেই বিভিন্ন কাস্টমার কেয়ার সার্ভিসে এপ্লাই করতে পারেন।

সূত্রঃ সমত টিভি নিউজ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin